পাতা:যশোহর-খুল্‌নার ইতিহাস প্রথম খণ্ড.djvu/৪৮৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

দক্ষিণরায় ও গাজীর কথার শেষ। శ్రీఫి(t জানা যায় না। তবে এই যুদ্ধে যে দক্ষিণরায় দমিত হইয়াছিলেন, তাহাতে সন্দেহ নাই। কেহ বলেন তিনি শেষ যুদ্ধে পরাজিত হইয়া ইষ্টদেবতা স্বর্ষোর মন্দিরের সন্মুখে সন্মুখযুদ্ধে প্রাণ বিসর্জন করিয়া, দিব্যধামে গমন করেন। * কিন্তু "রায়মঙ্গল” প্রভৃতিতে দেখিতে পাই, তিনি এই যুদ্ধের পর গাজীর সহিত সন্ধিসূত্রে আবদ্ধ হন। - “বড় খাগাজির সাথে, মহাযুদ্ধ খনিয়াতে দোস্তানি হইল তার পর।” এই দোস্তানি বা বন্ধুত্বের ফলে উভয়ে সুন্দরবন অঞ্চলে প্রভু হইয়া বসেন। কিন্তু তাহাদের উপর প্রভু ছিল, তাহারা যতই প্রভুত্ব করেন, বনদেবতার স্থান তাহাদের অপেক্ষী উচ্চ। এ সম্বন্ধে রচিত গল্প আছে ; “বনবিবির জন্থর নামা”--নামক মুসলমানী কেতাবে বনবিবির কেচ্ছ আছে। ঐ পুস্তকের মূল তাৎপৰ্য্য এই —মক্কাবাসী বেরাহিমের স্ত্রী গুলাল বিবি, সতীনের কৌশলে গর্ভাবস্থায় সুন্দরবনে পরিত্যক্ত হন। তথায় বনবিবি ও সা জঙ্গুলী নামে তাহার কন্ত ও পুত্র ভূমিষ্ঠ হয়। ভাটশ্বর দক্ষিণরায়ের কবল হইতে দুৰ্ব্বলকে রক্ষা করিবার জন্য ভগবানের আদেশে বনবিবি ভ্রাতাকে লইয়া ভাটিদেশে থাকিয়া যান। শিবাদহ, চাদথালি, রায়মঙ্গল হইতে আন্ধারমাণিক প্রভৃতিস্থান তাহাদের অধিকারভুক্ত হয়। দক্ষিণরায় তাহাতে ক্রুদ্ধ হইয়া যুদ্ধোদ্যোগ করিলে, স্ত্রীলোকের সহিত পুরুষের যুদ্ধ অকৰ্ত্তব্য এই কথা বুঝাইয়া দিয়া দক্ষিণরায়ের মাতা নারায়ণী আসিয়া বনবিবির সহিত যুদ্ধ করেন। যুদ্ধে নারায়ণী পরাজিত হইলে উভয় পক্ষে সন্ধি হইল, কেঁদোখালি দক্ষিণরায়কে দেওয়া হইল, বনবিবি পরে হাসনাবাদ প্রভৃতি কতকগুলি স্থল নিজে লইয়া আবাদ করিলেন। এই সময় বরিজহাটতে ধোনাই মোনাই নামে দুই ভাই ছিল। তাহারা সপ্ত ডিজ সাজাইয়া মোমমধু আনিবার জন্য বাদায় গেল। তাহদের সঙ্গে গেল জনৈক দুঃখিনী বিধবার একমাত্র পুত্র খে। উহার গড়খালি পৌঁছিলে দক্ষিণরায় নরবলি চাছিলেন—ৰাছিয়া চাছিলেন হতভাগ্য থেকে। তাঁহাই হইল, থেকে কেঁদোখালিতে নিক্ষেপ করা হইল। তখন বনবিৰি আসিরা দুর্বল ছুখের পক্ষ

  • • शूंश्,ंश्ा ,ि *** १* । ।