পাতা:যশোহর-খুল্‌নার ইতিহাস প্রথম খণ্ড.djvu/৫৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

રેંજ যশোহর-খুলনার ইতিহাস । জার সর্বদা বাজার বা ডাক্তারের সহিত সম্বন্ধ রাখিয়া যাহা আয় করে,তাহাই খরচ করিয়া ঋণগ্রস্ত হয়। নদীকূলে নিত্যনূতন মুক্ত সভ্যতার স্রোত, আর বদ্ধ বিলের পার্শ্বে সেই অনাড়ম্বর অপরিবর্তনীয় প্রাচীন পদ্ধতি। নদীতে ও বিল বাওড়ে এইটুকু প্রভেদ। তবে দেশের যেমন গতি, তাহাতে সকল নদীই বাওড় হইবে ; তখন আর কিছুর জন্ত না হউক, অন্ততু প্রাণের জন্তও হয়ত সেই প্রাচীন পদ্ধতি অবলম্বনীয় হইবে। এইরূপে বিলের এ পারেও যেমন, ও পারেও তেমনি। বিলের পরে শস্তক্ষেত্র, ক্ষেতের পাশে কৃষকের বসতি, তাহার পরে বাগান, ধনীর বসতি ও সৰ্ব্বশেষে নদী। হয়ত নদীর অপর পার হইতে আরম্ভ করিয়া পুনরায় এইভাবে লোকের বাস। যেখানে নদী হইতে বিল বহুদূরে সরিয়া গিয়াছে, সেখানেও ২৩ মাইলের অধিক দুরে যায় নাই। নদীতে পারাপারের সুবিধা থাকে, সুতরাং এপারের সহিত ওপারের সম্বন্ধ যায় না । কিন্তু বিল যদি খুব বড় হয়, তাহা হইলে এ পারে ওপারে সম্বন্ধ পর্য্যন্ত থাকে না, চলাচলের পথ থাকে না । প্রয়োজন হইলে বহুদূর ঘুরিয়া নদীপথে আসিয়া বিলের উভয় পারে সম্বন্ধ স্থাপন করিতে হয়। যশোহর-খুলনায় প্রায় প্রত্যেক দুইটি করিয়া বড় নদীর মধ্যে বিল দেখা যায়। তবে স্থান বহুদিনের পুরাতন হইলে, বিলের অস্তিত্ব লোপ পায়। বিল ক্রমশঃ শস্তক্ষেত্র হয়, শস্তক্ষেত বসতিস্থান হয়। পুরাতন যশোহরে বিলের সংখ্যা খুব কম। যশোহরের লোকেরা যে পৰ্যাপ্ত মৎস্ত পায় না এবং তজ্জন্ত খুলনার মুখাপেক্ষী হয়, তাহার কারণ এই। খুলনায় বিল অত্যন্ত অধিক ; এজন্য যশোহর অপেক্ষ খুলনায় অধিবাসীর সংখ্যা কম। খুলনার অৰ্দ্ধেক প্রায় সুন্দর বন। তাহার কথা এখানে ধরিব না। সুন্দর বনের প্রকৃতি সম্পূর্ণ বিভিন্ন। তাহ পৃথক ভাবেই আলোচিত হইবে। কিন্তু সে মুন্দর বন ছাড়িয়া দিলেও খুলনার উত্তরাদ্ধও অসংখ্য বিলে পরিপূর্ণ। আবার যশোহরের বিলগুলি ছোট, এবং ক্রমশ সংকীর্ণ হইয়া আসিতেছে। কিন্তু খুলনার বিলগুলি যত দক্ষিণে অগ্রসর হওয়া যাইবে, ততই বিস্তৃত, ততই প্রকাও। অবশেষে সমস্ত সুন্দরবনই একটু প্রকাও বহুবিস্তৃত বিল। পূৰ্ব্বেই বলা হইয়াছে যে দুই নদীর মাঝখানে এষ্টি মালার পশ্চাতে সৰ্ব্বত্রই বিল আছে। দৃষ্টান্তক্রমে মাত্র উহার কয়েকটি প্রধান বিলের নামোল্লেখ করা যাইতেছে।