পাতা:রঙ্গমল্লী.djvu/২৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


১৮ ब्रछामल्ली আর্য্যধন হ’বে না সে বৈশালীতে ; যতক্ষণ আমি বেঁচে আছি,— দেহে মোর আছে প্রাণ,—শিরায় শোণিত,—হ’বে না সে । দেবদেবী মানিনেকো, দৈববাণী—গ্রাহ সে করিনে দেবতা অন্যায় যদি বলে ; কি বিধানে, কি বিচারে কোন অধিকারে, সাধিবে এ কাজ আৰ্য্য ? কহু তুমি ; করেছ স্বদেশ রক্ষা, তাই বলে সন্তানে বধিবে ? সে নির্দোষ-কী করেছে ? কোন দোষে মৃত্যুদণ্ড তার ? তার প্রাণ বলি দিবে ? বৈশালীর লাগি ? এত দাম বৈশালীর ? ক্ষুদ্র হতে ক্ষুদ্রতম রক্তবিন্দু তার ঢের বেশী মূল্যবান জগতের শ্রেষ্ঠ রাজ্য হতে। অদ্ভুত পূজারী তুমি,—বলি-পগু আপন সন্তান ! পুরঞ্জয় রক্ষা কর—বন্ধ কর প্রগলভ প্রলাপ ! আর্য্যধন ভেবে দেখ, ওরে বধি বধিবে দুজনে ; মরে গেলে আয়ুষ্মতী তার পর বেঁচে থাকা—প্রাণহীন জড়ের জগতে— ভেবেছ সম্ভব তুমি—মোর পক্ষে ? আৰ্য্য পুরঞ্জয় । আমি যাব ; সেই শোকে মা আমার মরিবে অকালে,— বল্লুবরণের লাগি সাজায় বরণডালা যেই নিশ্চিন্ত-আনন্দে আজি উৎসব-মগন গৃহমাঝে।