পাতা:রঙ্গমল্লী.djvu/৬৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চতুর্থ অঙ্ক প্রথম দৃশ্য পশ্চিম প্রাসাদ (চীনসম্রাট ও প্রতিহারী ) সম্রাট শাওকীনকে পরেব হাতে তুলে দিয়ে পর্য্যন্ত আর দরবারে মুখ দেখাইনি। রাত্রির নিস্তব্ধতাও ভাল লাগে না, মন যেন আরো হতাশ হ’য়ে পড়ে। সাস্তুনার মধ্যে তাব এই ছবিখানি, এইখানিকে সামনে রেখে, এক দৃষ্টে চেয়ে চেয়ে রাত কেটে যায়। (প্রতিহারীর প্রতি) স্বর্ণ-তোরণের প্রতিহারী দেখ, দেখ, এদিকের ধূপটা একেবারে নিবে গেছে, আর একটা জেলে দাও দেখি। সে চোখের আড়াল হ’য়ে চলে গেছে, তাই বলে তাকে প্রাণেব আড়াল করতে পারব না ; তার এই ছায়াখানিই এখন আমার জীবনের অবলম্বন। ক্লাস্তিতে শরীর ভেঙে পড়চে, অথচ ঘুম আসে না । দেখি একটু ঘুমোবার চেষ্টা ক’রে দেখি। ( শয়ন ও নিদ্রাকর্ষণ—স্বপ্নে শাওকীনের আবির্ভাব ) শাওকীন বৰ্ব্বর তাতারের আমায় উত্তর দেশে নিয়ে যেতে চায় ; আমি তাদের তাবু থেকে লুকিয়ে চলে এসেচি। এই না মহারাজ ? রাজা আমার ! আমি আবার তোমার কাছে ফিরে এসিচি ।