পাতা:রঞ্জাবতী - ক্ষীরোদপ্রসাদ বিদ্যাবিনোদ.pdf/১৬৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

5फूf ङश् | YVy 5) ভেতরের অবস্থা কিছু জানে না। তারা জানে আমরা সবাই বেঁচে আছি। লক্ষ্মী ! যদি কেউ বিশ্বাসঘাতকতা না করে, তাহ’লে অম্বিকার আর কোন ভয় নেই। লক্ষ্মী।--বেশ, তুই একটু ঘুমোগে। लूि। - अब्र डूझे? লক্ষ্মী। —আমি সারারাত অম্বিকায় পাহারা দিই। আর বিধবা গুলো যে যার স্বামীপুত্রের নাম ধ’রে কেঁদে কেঁদে মারবে কেন ? যতক্ষণ বেঁচে থাকে তারা মনিবের অম্বিক রক্ষা করুক । দলু।-নারায়ণ ! আম্বিক রক্ষা কর! মনিবের আমাপু বংশ রক্ষা কর । ( উভয়ের প্রস্থান ) ( নিধিরামের প্রবেশ ) নিধি – উঃ! কি সজাগ পাহারা। কালী মন্দিরের ভেতরে ও তিন দিন চেষ্টা ক’রেওপ্রবেশ করতে পারুলুম না! আজি পেরেছি যুদ্ধ ক'রে সব মরেছে। অম্বিকা ফাকা । বাদবাকী যা আছে, তাদের আমিই শেষ করি-যারা আছে, তারা যুদ্ধ জয় ক’রে একটু বিশ্রাম নিতে শুয়েছে। মনে করেছে, শত্রু আর আসবেনা। এমন সুবিধে আর পাব না। কালী পায়ে ফুল রেখেছেন। এ সময় আর আসবে না। রাজার ছেলেকে মারবো মানদারণের ছেলেটাকে কঁধে ক’রে নোগে রাজাকে দেব, তারপর সব মারবো। তার পর ? আমিই অম্বিকার বাজা। মহাপাত্রকে ফিরতে বলেছি, চার ফটক খুলে রেখেছি। এতক্ষণ তার দল এসে পড়েছে। আর আমাকে পায় কে ?