পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (অচলিত) দ্বিতীয় খণ্ড.pdf/১২৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


রবীন্দ্র-রচনাবলী . چه لا জগৎ । মহাকবি আদি কবির মনোজগৎ কি ? “They said” তাহারা কহিল, কাহারা ? কে জানে কাহারা ! তাহার মনোরাজ্যের অধিবাসীরা ? তাহার ভাবসমূহ, তাহার কল্পনা ? এখানে সমস্তই রহস্য। কবি আলোকের রাজ্যে অন্ধ হইয় দিশাহারা হইয়া গিয়াছেন, স্পষ্ট করিয়া কিছুই দেখিতে পাইতেছেন না । এই নিমিত্ত তাহার কথা অস্পষ্ট অথচ মহান ভাবপূর্ণ। আমরা কল্পনায় দেখিতে পাইতেছি, একটি মৰ্ত্তোর শিশু বর্ণনার অতীত মহাজ্যোতিৰ্ম্ময় অনন্ত রাজ্যের মধ্যে গিয়া পড়িয়াছে, কোথায় কি ঠাহর পাইতেছে না, চোখে ধাধা লাগিয়াছে, মন অভিভূত হইয়া গিয়াছে, মুখে কথা ফুটিতেছে না। তিনি কহিতেছেন, “যে জগৎ আমাদের নহে, সেই জগতে তাহারা কহিল—“আইস, আমরা মচুন্য হই। —ভাবী মচুন্য, মনুষ্য-চক্ষুর অসহনীয় সেই এক-আলোক হইতে এই ছায়ালোকিত উপকূলে আসিয়া উপস্থিত হইল।” One light এক পরমজ্যোতি হইতে তাহারা আসিতেছে । সেই জ্যোতির তাহারা অংশ । খৃষ্টান সমালোচকগণ এ সকল ভাব বুঝিবে কিরূপে ? O dear Spirit half-lost In thine own shadow and this fleshly sign That thou art thou—who wailest being born And banish’d into mystery, and the pain Of this divisible-indivisible world Among the numerable-innumerable Sun, sun, and sun, thro' finite-infinite space In finite-infinite Time—our mortal veil And shatter'd phantom of that infinite One, Who made thee unconceivably Thyself Out of His whole World-self and all in all— Live thou ! হে আত্মা, তুমি কোথা হইতে কোথায় আসিয়াছ ? তুমি কি হইতে কি হইয়াছ ! তুমি যে জগতে আসিয়াছ, তাহাকে ভাগ করিয়া শেষ করা যায়। তখন যে একজগতে ছিলে, তাহ গণনার জগং নহে। এখন যে জগতে আসিয়াছ, এখানে স্বৰ্য্য নক্ষত্র গণনা করিয়া শেষ করা যায় না, তথাপি গণনা করা शाग्न তখন অসীম দেশে অসীম কালে ছিলে, এখন যে দেশে যে কালে নিৰ্বাসিত হইয়াছ তাহার সীমা পাইতেছি না অথচ সীমা আছে। তাহা সীমা-বিভক্ত অসীম । তুমি কি ছিলে কি হইয়াছ! তুমি ছিলে এক অসীমের মধ্যে, এখন তুমি তাহার চুৰ্ণ বিচূর্ণ উপচ্ছায়া মাত্র। কিন্তু এইখানেই তোমার শেষ নহে। তুমি অসীমের