পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (অচলিত) দ্বিতীয় খণ্ড.pdf/১২৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


". g ، - রবীশ্র-রচনাবলী ه ها We know we are nothing—but Thou wilt help us to be. Hallowed be Thy name—Halleluiah ! অনস্ত ভাব । অপরিমেয় সত্য ! অপরিসীম পুরুষ । অনস্ত ভাব আমাদের হইতে অত্যন্ত দূরবর্তী। কিছুতেই তাহার কাছে যাইতে পারি না। অবশেষে সেই ভাব মাত্রকে যখন সত্য বলিয়া জানিলাম, তখন তিনি আমাদের আরো কাছে আসিলেন । কিন্তু র্তাহাকে কেবলমাত্র সত্য বলিয়া জানিয়া তৃপ্তি হয় না । কেবল মাত্র একটি অন্ধ কারণ, অন্ধ শক্তি, অন্ধ সত্য বলিয়া জানিলে সম্পূর্ণ জানা হয় না। যখন জানিলাম তিনি অসীম পুরুষ, তাহার নিজত্ব আছে, তখন তিনি আমাদের কাছে আসিলেন, তখন র্তাহাকে আমরা প্রীতি করিতে পারিলাম। তখন তাহাকে কহিলাম তোমার জয় হউক । “We feel we are nothing—for all is Thou and in Thee "#ki অতীতের কথা । যখন আমরা তোমার মধ্যে ছিলাম তখন আমরা অনুভব করিতাম না যে আমরা কিছু, সকলি তুমি । ইহাই আমাদের ভাব মাত্র। তোমার মধ্যে আমরা ভাব মাত্রে ছিলাম। অবশেষে তোমার কাছ হইতে যখন আসিলাম, তখন *Rex officoș afforts, ATNT fog, “We feel we are something—that also has come from Thee;” & Tánszoo ol, of of Tsūsà Tây I got <IRT foz zostfz, atrial TSI =>#tfè, “We know we are nothingbut Thou wilt help us to be.” & efosso, so I wrot gift আমরা কিছুই নই—তুমি আমাদের ক্রমশই গঠিত করিয়া তুলিতেছ, আমাদের ব্যক্ত করিয়া তুলিতেছ! মৃত্যুর মধ্য দিয়া নূতন নূতন সত্য, নূতন নূতন জ্ঞান শিখাইয়। আমাদের পূর্ণ ব্যক্তি করিয়া তুলিতেছ। কোনও কালেই তাহা হইতে পারিব না, f54zetsië “Thou wilt help us to be.” অপূর্ণত। হইতে পূর্ণতার দিকে অগ্রসর হইবার আনন্দ আমরা চিরকাল ভোগ করিব। তোমার জয় হউক । মর্ত্য জীবনেও এই ক্রমোন্নতির তুলনা মিলে। মহন্ত প্রথমে এক মহা বাষ্পরাশির মধ্যে, সমস্ত জগতের আদিভূতের মধ্যে মিলিয়াছিল। ক্রমে ক্রমে অল্পে অল্পে পৃথক হইয়া মনুষ্যরূপে জন্মগ্রহণ করিল। অবশেষে যতই সে বড় হইতে লাগিল, অভিজ্ঞতা লাভ করিতে লাগিল, ততই তাহার ব্যক্তিত্ব জন্মিতে লাগিল । এই ক্রম অনুসারেই কবি ঈশ্বরকে প্রথমে অনন্ত ভাব, পরে অপরিমেয় সত্য ও তৎপরে অপরিসীম পুরুষ বলিয়াছেন । এইখানে কবিতা শেষ হইল। ইহার পরে আর কোথায় যাইবে ? ইহাই চুড়াস্ত সীমা ! যাহার একটা দৈত্যকে পৰ্ব্বত বলিলে, দৈত্যের যষ্টিকে শালবৃক্ষ