পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (অচলিত) দ্বিতীয় খণ্ড.pdf/১৪৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


সমালোচনী । ువరి বিমল বিম্বফল যুগল বিকাশ, তা পর কির থির করু বাস । তা পর চঞ্চল খঞ্জন ষোড়, তা পর সাপিনী ব্যাপল মোড় । আর বসন্তরায়ের রাধা শু্যামকে দেখিয়া কি বলিতেছেন ? সজনি, কি হেরমু ও মুখ শোভা ! অতুল কমল সৌরভ শীতল, অরুণ নয়ন অলি আভা । প্রফুল্পিত ইন্দীবর বর সুন্দর মুকুর-কান্তি মনোৎসাহ । রূপ বরণিব কত ভাবিতে থকিত চিত, কিয়ে নিরমল শশি-শোহা । বরিহা বকুল ফুল অলিকুল আকুল, চূড়া হেরি জুড়ায় পরাণ ! অধর বান্ধুলী ফুল শ্রুতি মণি কুণ্ডল প্রিয় অবতংস বনান । হাসিখানি তাহে ভায়, অপাঙ্গ ইঙ্গিতে চায়, বিদগধ মোহন রায় । মুরলীতে কিবা গায় শুনি আন নাহি ভায় জাতি কুলশীল দিতু তায় । না দেখিলে প্রাণ কাদে দেখিলে না হিয়া বাধে, অকুখন মদন তরঙ্গ । হেরইতে চাদ মুখ মরমে পরম সুখ, স্বন্দর শু্যামর অঙ্গ । চরণে নূপুর মণি স্বমধুর ধ্বনি শুনি ধরণীক ধৈরজ ভঙ্গ । ও রূপ-সাগরে রস- হিলোলে নয়ন মন আটকল রায় বসন্ত ॥ বিদ্যাপতি হইতে উদ্ধৃত কবিতাটি পড়িয়াই বুঝা যায়, এই কবিতাটি রচনা করিবার সময় কবির হৃদয়ে ভাবের আবেশ উপস্থিত হয় নাই । কতকগুলি টানাবোন বর্ণনা