পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (অচলিত) দ্বিতীয় খণ্ড.pdf/২৩৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


डैश्iनियन्न बु। S&> যিনি বাক্য দ্বারা উদিত নহেন, বাক্য র্যাহার দ্বারা উদিত, তিনিই ব্ৰহ্ম, তাহাকে তুমি জান, এই যাহা কিছু উপাসনা করা যায় তাহ ব্ৰহ্ম নহে। যন্মনসা ন মন্থতে যেনাহুর্মনোমতম্ তদেব ব্ৰহ্ম ত্বং বিদ্ধিং নেদং যদিদমুপাসতে— মনের দ্বারা র্যাহাকে মনন করা যায় না, যিনি মনকে জানেন, তিনিই ব্রহ্ম, তাহাকে তুমি জান, এই যাহা কিছু উপাসনা করা যায় তাহা ব্ৰহ্ম নহে। যাহাকে বলা যায় না, যাহাকে ভাবা যায় না তাহাকেই জানিতে হইবে। কিন্তু তাহাকে সম্পূর্ণ জানা সম্ভব নহে—যদি তাহাকে সম্পূর্ণ জানা সম্ভব হইত তবে তাহাকে জানিয়া আমাদের আনন্দামৃত লাভ হইত না। র্তাহাকে আমরা অন্তরাত্মার মধ্যে এতটুকু জানি যাহাতে বুঝিতে পারি তাহাকে জানিয়া শেষ করা যায় না এবং তাহাতেই আমাদের আনন্দের শেষ থাকে না | নাহং মন্তে স্ববেদেতি নো ন বেদেতি বেদচ, যো নস্তস্বেদ তত্ত্বেদ নে ন বেদেতি বেদচ– তাহাকে সম্পূর্ণরূপে জানি এমন আমি মনে করি না, না জানি যে তাহাও নহে, আমাদের মধ্যে যিনি র্তাহাকে জানেন তিনি ইহা জানেন যে, তাহাকে জানি এমনও নহে, না জানি এমনও নহে । শিশু কি তাহার মাতার সম্যক পরিচয় জানে ? কিন্তু সে অনুভবের দ্বারা এবং এক অপূৰ্ব্ব সংস্কার দ্বারা এটুকু ধ্রুব জানিয়াছে যে তাহার ক্ষুধার শাস্তি, তাহার ভয়ের নিবৃত্তি, তাহার সমস্ত আরাম মাতার নিকট । সে তাহার মাতাকে জানে এবং জানেও না । মাতার অপৰ্য্যাপ্ত স্নেহ সম্পূর্ণ আয়ত্ত করিবার সাধ্য তাহার নাই, কিন্তু যতটুকুতে তাহার তৃপ্তি ও শাস্তি ততটুকু সে আস্বাদন করে এবং আস্বাদন করিয়া ফুরাইতে পারে না। আমরাও সেইরূপ ব্রহ্মকে এই জগতের মধ্যে এবং আপন অন্তরাত্মার মধ্যে কিছু জানিতে পারি এবং সেইটুকু জানাতেই ইহা জানি যে, র্তাহাকে জানিয়া শেষ করা যায় না ; জানি যে, তাহা হইতে বাচো নিবৰ্ত্তন্তে অপ্রাপ্য মনসা সহ, এবং মাতৃ-অঙ্ককামী শিশুর মত ইহাও জানিতে পারি যে, আনন্দং ব্রহ্মণো বিদ্বান ন বিভেতি কদাচন–র্তাহার আনন্দ যে পাইয়াছে তাহার আর কাহারও নিকট হইতে কদাচ কোন ভয় নাই । f যাহারা উপনিষৎ অবিশ্বাস করিয়া ঋষিবাক্য অমান্য করিয়া ব্ৰহ্মলাভের সহজ উপায়স্বরূপ সাকার পদার্থকে অবলম্বন করেন তাহার এ কথা বিচার করিয়া দেখেন না যে, ঐকাস্তিক সহজ কঠিন বলিয়া কিছু নাই। সস্তরণ অপেক্ষা পদব্রজে চলা সহজ বলিয়া