পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (অচলিত) দ্বিতীয় খণ্ড.pdf/৬৪৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


७२२ রবীন্দ্র-রচনাবলী দাদা বলে, জানি জানি সে-ঘর আকাশে আছে । সেথা করে আসা-যাওয়া নানা রঙা মেঘগুলি । আসে আলো, আসে হাওয়া গোপন জুয়ার খুলি’ ৷ এ ছন্দটি দুই মাত্রায় অথবা তিন মাত্রায় পড়া যায় । দুই মাত্রা, যথা— কাল। ছিল । ডাল । খালি । আজ । ফুলে। যায়। ভ’রে । তিন মাত্রা, যথা— কাল ছিল ডাল । খালি— আজ ফুলে যায়। ভ’রে— তিন মাত্রার তালে পড়লেই ভালো হয় । • ਣਾਏੰਡਜ਼ –ੱਭੋ। ভোর হোলো । ধোবা আসে। ঐ তো লোক ধোবা । গোরা-বাজারে বাসা । ওর থোকা খুব মোটা, গাল ফোলা । ঐ-যে ওর পোষা গাধা। ওর পিঠে বোঝা । খুলে দেখো । আছে ধুতি । আছে জামা, মোজা, শাড়ি । আরো কত কী । ওর খুড়ো স্থতো বেচে, উল বেচে । ওর মেসে বেচে ফুলের তোড়া । ধোবা কোথা ধুতি কাচে, জানো ? ঐ-যে ডোবা, ওখানে। ওর জল বড়ো ঘোলা । গাধা ছোলা খেতে ভালোবাসে। ওকে কিছু ছোলা খেতে দাও। ছোলা কোথা পাব । ঐ-যে ঘোড়া ছোল খায় । ওর ঘর খোলা আছে । ঐ কোঠাবাড়ি । ওখানে আজ বিয়ে । তাই ঢের ঘোড়া এল, গাড়ি এল। এক জোড়া হাতি এল ।