পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (অচলিত) দ্বিতীয় খণ্ড.pdf/৬৬০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


রবীন্দ্র-রচনাবলী سS9bاوا\ ইটে-গড়া গণ্ডার বাড়িগুলো সোজা চলিয়াছে দুদ্দাড় জানালা দরজা। রাস্ত চলেছে যত,অজগর সাপ, পিঠে তার ট্রামগাড়ি পড়ে ধুপ ধাপ । দোকান বাজার সব নামে আর উঠে, ছাদের গায়েতে ছাদ মরে মাথা কুটে । হাওড়ার ব্রিজ চলে মস্ত সে বিছে, হ্যারিসন রোড চলে তার পিছে পিছে । মনুমেণ্টের দোল, যেন খ্যাপা হাতি শূন্যে দুলায়ে শুড় উঠিয়াছে মাতি । আমাদের ইস্কুল ছোটে হনহন, অঙ্কের বই ছোটে, ছোটে ব্যাকরণ। ম্যাপগুলো দেয়ালেতে করে ছট্‌ফট্‌, পাখি যেন মারিতেছে পাখার ঝাপট । ঘণ্টা কেবলি দোলে ঢঙ ঢঙ বাজে— যত কেন বেলা হোক তবু থামে না-যে । লক্ষ লক্ষ লোক বলে “থামো থামো, কোথা হতে কোথা যাবে এ কী পাগলামো ।” কলিকাতা শোনে না কো চলার খেয়ালে ; নৃত্যের নেশা তা’র স্তম্ভে দেয়ালে । আমি মনে মনে ভাবি, চিস্তা তো নাই, কলিকাতা যাক না কো সোজা বোম্বাই । দিল্লি লাহোরে যাক, যাক না আগরা, মাথায় পাগড়ি দেব, পায়েতে নাগরা । কিংবা সে যদি আজ বিলাতেই ছোটে ইংরেজ হবে সবে বুট হাটু কোটে । কিসের শব্দে ঘুম ভেঙে গেল যেই দেখি, কলিকাতা আছে কলিকাতাতেই । ம்மகன்களும்க மம்