পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (অচলিত) দ্বিতীয় খণ্ড.pdf/৭১০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


রবীন্দ্র-রচনাবলী بوابطينا এই যে আছে বিপরীতের লীলা হাটের প্রসঙ্গে কবি তার কী রকম বর্ণনা করেছেন জানাও । দেখক এবার জগৎটাকে জগৎকে সত্য করে দেখতে গেলে কেমন করে দেখতে হবে, তার ভিতরের রহস্ত স্ববারিত হয় কিসের আঘাতে, এ সম্বন্ধে কবি নজরুল ইসলামের নির্দেশ কী জনাও । সিন্ধু কবি সমুদ্রকে নমস্কার করছেন। তিনি তার মধ্যে কী ভাব দেখেছেন। একদিকে দেখছেন তার আত্মনিমগ্ন বিরাট ঔদাসীন্য, আর একদিকে তার দানের অবিশ্রাম অজস্রতা—সেই সঙ্গে তার হৃত ঐশ্বর্য রিক্ততার শূন্তময়ত, তার গর্জিত ক্ৰন্দন । কবির ভাষা অনুসরণ ক’রে এই বিচিত্র ভাবের আলোড়নকে ব্যক্ত করে । গোফচুরি f এই কবিতাটির মজা কোনখানে । আপিসের বড়োবাবু খেপে উঠে গোফচুরি ব্যাপারটাকে নিশ্চিত সত্য বলে মনে ক’রে প্রতিবাদকারীদেরকে নির্বোধ ব’লে তর্জন করছেন । এই অসম্ভব ব্যাপারকে কোনো উচ্চপদস্থ লোক সত্য মনে ক’রে আপন মর্যাদা নষ্ট করছে এইটেই কি কৌতুকের বিষয়, অথবা যেটা ঘটেনি, যেটা কেউ বিশ্বাস করেনি, সেটাকে বিশ্বাস করার চোখ-টেপা ভঙ্গীতে কবি গম্ভীর ভাবে ব’লে যাচ্ছেন সেইটেই হাসির কথা । বঙ্গলক্ষ্মী লক্ষ্মীর উদ্দেশে কবি কী কথা বলছেন । दमुख्छुक्रम কবি কাকে বলছেন বনভোজন । কে ভোজন করাচ্ছে । কী রকম তার বর্ণনা । প্রেমের দেবতা যিশুখ্রীস্টকে উদ্দেশ ক’রে এই কবিতায় যে নিবেদন আছে তার ব্যাখ্যা করে । বন্দী কবি কারাবন্দী অবস্থায় পৃথিবীর নানা বন্ধনে বন্দীদের কথা স্মরণ করে কী বলছেন লেখে । শুধু এক বেরসিকেরি তরে এই কবিতায় বর্ণিত ঘটনাটি তোমার ভাষায় লেখেন। ময়নামতীর চর ময়নামতীর চরের বর্ণনা গদ্য ভাষায় লেখো ।