পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (অচলিত) প্রথম খণ্ড.pdf/১৪৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চপলা । রবীন্দ্র-রচনাবলী ধা সখি, একটু মোরে রেখে দে একেলা, এ বন আঁধার ঘোর ভাল লাগিবে না তোর, তুই কুঞ্জবনে, সখি, কর গিয়ে খেলা ! মনে আছে, অনিলের ফুলশয্যা আজ ? তুই হেথা বোসে রবি, কত আছে কাজ ! কত ভোরে উঠে বনে গেছি ছুটে, মাধবীরে লোয়ে ডাকি, ভালে ডালে যত ফুল ছিল ফুটে একটি রাখি নি বাকি ! শিশিরে ভিজিয়ে গিয়েছে আঁচল, কুসুমরেণুতে মাখা । কাটা বিধে, সখি, হোয়েছিল্প সারা নোয়াতে গোলাপ-শাখা ! তুলেছি করবী গোলাপ-গরবী, তুলেছি টগরগুলি, যুইকুঁড়ি যত বিকেলে ফুটিবে उश्वन श्रांनिव छूलि । জায়, সখি, আয়, ঘরে ফিরে আয়, অনিলে দেখ সে আজ— হরষের হাসি অধরে ধরে না, কিছু যদি অাছে লাজ ! আহ সখি, বড় তারা ভালবাগে ছুই জনে ! হ্য। সখি, এমন আর দেখি নি ত বর-কোনে । জানিস্ত, সখি, ললিতার মত অমন লাজুক মেয়ে অনিলের সাথে দেখা করিবারে প্রতিদিন যায় বিপাশার ধারে সরমের মাথা খেয়ে । কবরীতে বাধি কুস্কমের মালা, নয়নে কাজলরেখা,