পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (অচলিত) প্রথম খণ্ড.pdf/২০০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ՖԳՆ ब्ररौौटश-ब्रछबांवलौ তোমার প্রতিমা লয়ে কিরণে-কিরণে-ভয়া উড়েছে কল্পনা, কোথা ফেলিয়ে রেখেছে ধরা । হরিত-জাসন-’পরে নন্দনবনের কাছে ফুলবাস পান করি বসন্ত ঘুমায়ে আছে, ঘুমন্ত সে বসন্তের কুস্থমিত কোল-পরে তোমারে কল্পনারাণী বসায়েছে সমাদরে— চারি দিকে জুইফুল চারি দিকে বেলফুল— ঘিরে ধিরে রহিয়াছে অজস্ৰ কুঙ্কমকুল, শাখা হতে হয়ে পড়ে পরশিয়া এলো চুল শতেক মালতীকলি হেসে হেসে চলাচলি, কপালে মারিছে উকি কপোলে পড়িছে ঝুকি ওই মুখ দেখিবারে কৌতুহলে সমাকুল, অজস্ৰ গোলাপ-রাশি পড়িয়া চরণতলে না জানি কি মনোহুখে আকুল শিশিরজলে । তোমার প্রতিমা লয়ে কল্পনা এমনি করি খেলাইয়া বেড়াইছে, নাহি দিবা বিভাবী— কন্তু বা তারার মাঝে কন্তু বা ফুলের পরে কন্তু বা উষার কোলে কৰ্ভু সন্ধ্যামেঘন্তরে ; কত ভাবে দেখিতেছে, কত ছবি আঁকিতেছে— প্রফুল্ল-আনন কতু হরবের হালি-মাখা, অভিমান-নত মাখি কন্তু অশ্রজলে ঢাকা । কাছে এস, কাছে এস, একবার মুখ দেখি— তোল গো, নলিনীবালা, হাসিভারে নত জাখি ! মৰ্ম্মভেদী অাশা এক লুকানো হৃদয়তলে, ওই হাতে হাত দিয়ে প্রাণে প্রাণে মিশাইয়ে বসন্তের বায়ু সেবি কুস্কমের পরিমলে নীরব জোছনা রাতে বিপাশাতটিনীতীরে ফুলপথ মাড়াইয়া দোহে বেড়াইব ধীরে । আকাশে হাসিবে চাদ, নয়নে লাগিবে ঘোর, সুমময় জাগরণে করিব রজনী ভোৱ ।