পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (অচলিত) প্রথম খণ্ড.pdf/২৫৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ভগ্নহৃদয় 3 రి) মাঝে মাঝে স্বপ্ন দেখে— আপনারে ভুলে— প্রাণপণে ভালবেসে জড়ায়ে জড়ায়ে শেষে এক দিন উঠবে সে বুকে মাথা তুলে, শাখাটি বাধিতে দিবে আলিঙ্গনে তার, ছুখিনীর সে আশা কি বড় অহঙ্কার ? কি করেছি অপরাধ বুঝিতে না পারি ! দিন রাত্রি, সখা, আমি রয়েছি তোমারি – কিসে তুমি ভাল রবে, কিসে তুমি স্বর্থ হবে, দিন রাত সে ভাবনা জাগিছে অস্তরে ! মুহূৰ্ত্ত ভাবি না আমি আপনার তরে । তারি বিনিময়ে কি গে। এত অনাদর ! শতখান ফেটে যায় বুকের ভিতর ! সখা, আমি অভিমান কভু করি নাই— মনে করিতে ও তাহা লাজে মরে যাই । ধীরে ধীরে এনে কাছে মনে মনে হাস পাছে “দুখিনী ললিতা সেও অভিমান করিয়াছে ” তাই অভিমান কভু মনেও না ভায়, অশ্রাঙ্গল হেরে পাছে হাসি তব পায় ! বুকে বড় ব্যথা বাজে, তাই ভাবি মাঝে মাঝে ভিক্ষুকের মত গিয়া পড়ি তব পায়— কেঁদে গিয়ে ভিক্ষণ করি করিয়া বিনয়, *সৰ্ব্বস্ব দিয়েছি ওগে।— পরাণ হৃদয়— হৃদয় দিয়েছি বলে হৃদয় চাহি না ভুলে— একটু ভালবাসিও, আর কিছু নয় ।” পাছে গো চাহিলে ভিক্ষণ, ধরিলে চরণে, বিরক্ত বা হও তাই ভয় করি মনে । তবে গো কি হবে মোর । জানাব কি করে ? এমন ক'দিন আর রব প্ৰাণ ধরে ? হা দেবি ! হা ভগবতি । জীবন দুর্তর অতি ! কিছুতে কি পাব মাকো ভালবাসা তার ?