পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (অচলিত) প্রথম খণ্ড.pdf/২৫৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ミや8 রবীন্দ্র-রচনাবলী নয়নেতে নিদ্রা নাই, চোখে না দেখিতে পাই, হাহা করে ভ্ৰমিয়াছি বিপাশার জীর । করেছে দারুণ ঝড় বজদন্ত কড় মড়, চারি দিকে অন্ধকার সম্মুখে পশ্চাতে— মাথার উপরে চাই— একটিও তারা নাই, স্বষ্টি যেন ঠাই নাহি পেতেছে দাড়াতে ! সাধ গেছে, ঝটিকার রুদ্রদেবগণ বিশাল চরণ দিয়া দঙ্গি ষায় এই হিয়া— নিষ্পেষিত করি ফেলে কীটের মতন । চূর্ণ হয়ে একেবারে মিশে ধূলিরাশে উড়ে পড়ে চারি দিকে বাতাসে বাতাসে । অশান্তির এক উপদেবতার মত নিজের হৃদয়-সাথে যুঝিয়াছি কত । করি আশ্রবারিপাত গেছে চলি দিনরাত, অবশেষে আপনি হলেম পরাভূত ! ইচ্ছা করে ছিড়ি ছিড়ি হৃদয় আমার শকুনী গৃধিনীদের যোগাই আহার । এহেন অসার দীন হৃদি অতি বলহীন, যোগ্য শুধু শিশুর খেলেন। গড়িলার । এ হৃদি কি বলবান পুরুসেব মন-- সামান্ত পহিলে বায় সঘনে কঁপিবে কায়, মাটিতে নোয়বে মাথা লতার মতন । কেন ধর, কেন ওবে, জন্ম দিয়েছিলি মোরে ? এমন অসার লঘু দুৰ্ব্বল এ প্রাণ ? এথনি গা দ্বিধা হও, লও মোরে কোলে লও ! এ হীন জীবনশিখা কর গো নিৰ্বাণ ! আর একবাক দেখি, যদি এ হৃদয় পারি জামি বজবলে করিবারে জয় ! কিন্তু হায় কে আমরা ? ভাগ্যের খেলেন, প্রচও অদৃষ্টলোতে ক্ষুজ তৃণকণা !