পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (অচলিত) প্রথম খণ্ড.pdf/২৮৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


২৩২ রবীজ-রচনাবলী একত্রিংশ সগ অনিল ও কবি অনিল । একবার এস তুমি, চল গে। হোখায়— দেখে যাও কি হৃদয় দোলেছ ছু-পায় ! যখন কোরক সবে, খোলে নাই মাখি, তখন হৃদয়ে তার বসিয়া একাকী দিনরাত — দিনরাত বিবদম্ভ বিধি আহ সেই স্থকুমার কিশলয়হৃদি বিন্দু বিন্দু রক্ত তার করেছ শোষণ । কথাটি সে বলে নাই— মুখটি সে তুলে নাই, হৃদয়ম্বাতীরে হৃদে দিয়েছে আসন । জাজ সে যৌবনে যবে খুলিল নয়ন— দেখিল হৃদয়ে তার নাই রক্তলেশ, যৌবনের পরিমল হয়েছে নিঃশেষ । কথাটি সে বলিল না— মুখটি সে তুলিল না, ছকবল মাথাটি আহি পড়িল গো কুয়ে— মাটিতে মিশাবে কবে, চেয়ে আছে জু য়ে । এস তবে বিষকীট, দেখ’সে আসিয়া— হলাহলময় হাসি মরিও হাসিয়া — একটু একটু করি কি করে যেতেছে মল্পি, একটি একটি দল পড়িছে খসিয়া । বিষাক্ত নিশ্বাসে তব বিষাক্ত চুম্বনে কি রোগ পশিল তার স্বকোমল মনে ? তার চেয়ে কেন তীব্র অশনি জাসিয়। দারুণ চুম্বনে তারে ফেলে নি নাশিয়া ! দণ্ডে দণ্ডে পলে পলে জরি জরি হলাহুলে মর্শ্বে মৰ্ম্মে শিরে শিরে হ’ত না দহিতে, মনের ব্যখার পরে জংশন সহিতে ।