পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (অচলিত) প্রথম খণ্ড.pdf/৩৮৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


\ONo রবীন্দ্র-রচনাবলী ವು এক এক জন লোক আছে, তাহারা যতক্ষণ একলা থাকে ততক্ষণ কিছুই নহে, একটা শূন্ত ( - ) মাত্র, কিন্তু একের সহিত ৰখনি যুক্ত হয় তখনি দশ (১• ) হইয়া পড়ে। একটা আশ্রয় পাইলে তাহারা কি না করিতে পারে! সংসারে শত সহস্ৰ 'শৃঙ্গ আছে, বেচারীদের সকলেই উপেক্ষা করিয়া থাকে— তাহার একমাত্র কারণ সংসারে জাসিয়া তাহারা উপযুক্ত এক পাইল না, কাজেই তাহাদের জুস্তিত্ব না থাকার মধ্যেই হইল। এই সকল শূন্তদের এক মহা দোষ এই যে, পরে বলিলে ইহার ১কে ১• করে বটে, কিন্তু আগে বসিলে দশমিকের নিয়মানুসারে ১কে তাহার শতাংশে পরিণত করে ( • ১ ) অর্থাৎ ইহারা অস্তের দ্বারায় চালিত হইলেই চমৎকার কাজ করে বটে, কিন্তু অন্তকে চালনা করিলে সমস্ত মাটি করে। ইহার এমন চমৎকার সৈন্য ষে মন্দ সেনাপতিকেও জিতাইয়া দেয়, কিন্তু এমন খারাপ সেনাপতি ষে ভাল সৈন্তদেরও হারাইয়া দেয় । স্ত্রী-মৰ্য্যাদা-অনভিজ্ঞ গোয়ারগণ বলেন যে, স্ত্রীলোকেরা এই শূন্ত । ১এর সহিত যতক্ষণ তাহারা যুক্ত না হয় ততক্ষণ তাহারা শূন্ত। কিন্তু ১এর সহিত বিধিমতে যুক্ত হইলে সে ১কে এমন বলীয়ান করিয়া তুলে ষে, সে দশের কাজ করিতে পারে। কিন্তু এই শৃঙ্গগণ যদি ১এর পূৰ্ব্বে চড়িয়া বসেন তবে এই ১ বেচারীকে তাহার শতাংশে পরিণত করেন । ন্ত্রৈণ পুরুষের আর এক নাম • •১ । কিন্তু এই অযৌক্তিক লোকদের সঙ্গে আমি মিলি না। স্ত্রৈণ আমি দেখিতেছি মহিলারা রাগ করিতেছেন, অতএব ন্ত্রৈণ কাহাকে বলে তাহার একটা মীমাংসা করা আবশ্বক বিবেচনা করিতেছি। এই কথাটা সকলেই ব্যবহার করেন, কিন্তু ইহার অর্থ অতি অল্প লোকেই সৰ্ব্বতোভাবে বুঝেন। ষে ব্যক্তি স্ত্রীকে কিছু বিশেষরূপ ভালবালে সাধারণতঃ লোকে তাহাকেই স্ত্রৈণ বলে। কিন্তু বাস্তবিক স্ত্রৈণ কে ? না, ষে ব্যক্তি স্ত্রীকে আশ্রয় দিতে পারে মা, স্ত্রীর উপর নির্ভর करब्र । दजिर्छ गूक्ष एंहेबांe चवला नांद्रौzक c#नांन क्ब्रिां षटिक ! cष बाङि "फिब्र