পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (অচলিত) প্রথম খণ্ড.pdf/৪৩৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


83२ রবীন্দ্র-রচনাবলী নলিনী। তোয় পায়ে পড়ি ফুলি, আমাকে আর বাগানে যেতে বলিল নে, আমাকে একটু একলা থাকতে দে । ফুলি। জামাদের সেই মাধবীলতাটি শুকিয়ে এসেচে, তাতে একটু জল দিবি নে ? मजिबैौ । मां । ফুলি। আমাদের সেই পোষ-মানা পাখীর ছানাটি আজকের একটু একটু উড়ে বেড়াচ্চে, তাকে একবার দেখতে ইচ্ছে করচে না ? नजिबैौ । मां भूजि ! ফুলি। তবে আমি যাই, মালা গাথি গে, কিন্তু তোকে মালা দেব না ! [ প্রস্থান তৃতীয় দৃশ্য বিদেশ নীরদ নীরজ উদ্যান নীরদ । (স্বগত) এত দিন এলুম, মনে করেছিলুম একখানা চিঠিও পাওয়া স্বাবে । -কেমন জাছ” একবার জিগেস করতেও কি নেই ? স্ত্রীলোকের কঠোর झकञ्च कि उब्रांमक नृथ ! নীরজা । (কাছে আসিয়া ) এমন ক’রে চুপ ক’রে আছ কেন নীরদ ? নীরদ । আহা, কি স্থধাময় স্বর ! কে বলে স্ত্রীলোকের প্রাণ কঠিন ? মমতাময়ি, এত স্থধা তোমাদের প্রাণে কোথায় থাকে ? আমি কি চুপ করে আছি! আর থাকব না। বল কি করতে হবে। এস, জামরা দুজনে মিলে গান গাই। নীরজা। না নীরদ, জামার জন্তে তোমাকে কিছু করতে হবে না। তোমাকে বিমর্ষ দেখলে আমার কষ্ট হয় বলে যে তুমি প্রফুল্লতার ভাগ করবে সে আমার পক্ষে ৰিগুণ কষ্টকর । একবার তোমার দুঃখে আমাকে স্থঃখ করতে দাও, মিছে হাসির চেয়ে লে ভাল ।