পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (অচলিত) প্রথম খণ্ড.pdf/৪৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


२छ” রবীন্দ্র-রচনাবলী লে দিন কি হর্ষে কবি কি আনন্দে কি উচ্ছ্বাসে ক্ষুত্র এ হৃদয় মোর ফেটে গেল যেন । আমি কোথাকার কেবা ! আমি ক্ষুদ্র হোতে ক্ষুদ্র, স্বর্গের দেবতা তুমি ভালবাস মোরে ? এত সৌভাগ্য, কবি, কখনো করি নি আশা— কখনো মুহূৰ্ত্ত-তরে জানি নি স্বপনে । ঘেথায় যাও-না কবি, যেথায় থাক-না তুমি, আমরণ তোমারেই করিব অর্চনা । মনে রাখ নাই রাখ, তুমি যেন মুখে থাক দেবতা ! এ দুখিনীর শুন গো প্রার্থনা । তৃতীয় সর্গ কত দেশ দেশাস্তরে ভ্ৰমিল সে কবি ! তুষারস্তম্ভিত গিরি করিল লঙ্ঘন, স্বতীক্ষকণ্টকময় অরণ্যের বুক মাড়াইয়া গেল চলি রক্তময় পদে । কিন্তু বিহঙ্গের গান, নিঝরের ধ্বনি, পারে না জুড়াতে আর কবির হৃদয় । বিহগ, নিঝরি-ধ্বনি প্রকৃতির গীত– মনের যে ভাগে তার প্রতিধ্বনি হয় সে মনের তন্ত্রী যেন হোয়েছে বিকল । একাকী যাহাই আগে দেখিত সে কবি তাহাই লাগিত তার কেমন সুন্দর, এখন কবির সেই একি হোলো দশ।– যে প্রকৃতি-শোভা-মাঝে নলিনী না থাকে ঠেকে তা শূন্যের মত কবির নয়নে, নাইক দেবতা যেন মন্দিরমাঝারে । বালার মুখের জ্যোতি করিত বৰ্দ্ধন