পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (অচলিত) প্রথম খণ্ড.pdf/৫৩১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


রবীন্দ্র-রচনাবলী সাটিয়া যাইত বুক, বাছতে ঢাকিয়া মুখ কাৰিয়া কাৰিয়া হ’ত সারা । । কাননশৈলের পায়ে মধ্যাছে গাছের ছায়ে মলিন অঞ্চলে রাখি মাথা কত কি ভাবিত হায়, উচ্ছ্বসি উঠিত বায়, ঝরিয়া পড়িত শুষ্ক পাত । গভীর নীরব রাতে উঠিয়া শৈলের মাথে বসিয়া রহিত একাকিনী— তারা-পানে চেয়ে চেয়ে কত-কি ভাবিত মেয়ে, পড়িত কি বিষাদকাহিনী ! কি করিলে ললিতার ঘুচিবে হৃদয়ভার স্বরেশ না পাইত ভাবিয়া— কাতর হইয়া কত যুবা তারে শুধাইত, আগ্রহে অধীর তার হিয়— *রাখ কথা, শুন সখি, একবার বঙ্গ দেখি কি করিব তোমার লাগিয়া ? কি চাও, কি দিব বালা, বল গে কিসের জালা ? কি করিলে জুড়াবে ও হিয়া ?” করুণ মমতা পেয়ে স্বরেশের মুখ চেয়ে অশ্র উচ্ছসিত দরদরে— ললিতা কাতর রবে রুদ্ধকণ্ঠে কহে তবে,

  • সখা গো ভেব না মোর তরে ! আমারে দি ও না দেখা, বিজনে রহিব একা

বিজনেই নিপাতিব দেহু । এ দগ্ধ জীবন মোর কাদিয়া করিব ভোর, জানিতেও পারিবে না কেহ ।” স্কুরেশ ব্যথিতহিয়া একেল বিজনে গিয়া ভাবিত, কাদিত আনমনে— প্রাণপণ করি তার তবুও ত ললিতার পারিল না অশ্রুবিমোচনে ।