পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (অচলিত) প্রথম খণ্ড.pdf/৫৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


\b8 রবীন্দ্র-রচনাবলী চতুর্থ সর্গ “এ তবে স্বপন শুধু, বিম্বের মতন আবার মিলায়ে গেল নিদ্রার সমূত্রে ! সারারাত নিদ্রার করিমু আরাধনা— যদি বা আইল নিদ্রা এ শ্রাস্ত নয়নে, মরীচিকা দেখাইয়া গেল গো মিলায়ে ! হা স্বপ্ন, কি শক্তি তোর, এ হেন মূরতি মুহূৰ্ত্তের মধ্যে তুই ভাঙ্গিলি, গড়িলি ? হা নিষ্ঠুর কাল, তোর এ কিরূপ খেলা— সত্যের মতন গড়িলি প্রতিমা, স্বপুের মতন তাহা ফেলিলি ভাঙ্গিয়া ? কালের সমুত্রে এক বিশ্বের মতন উঠিল, আবার গেল মিলায়ে তাহাতে ? না না, তাহা নয় কহু, নলিনী, সে কি গো কালের সমূত্রে শুধু বিম্বটির মত! যাহার মোহিনী মূৰ্ত্তি হৃদয়ে হৃদয়ে শিরায় শিরায় অঁাক শোণিতের সাথে, যত কাল রব বেঁচে যার ভালবাসা চিরকাল এ হৃদয়ে রহিবে অক্ষয়, সে বালিকা, সে নলিনী, সে স্বর্গপ্রতিমা, কালের সমূত্রে শুধু বিশ্বটির মত তরঙ্গের অভিঘাতে জন্মিল মিশিল ? না না, তাহ নয় কন্তু, তা যেন না হয় ! দেহকারাগারমুক্ত সে নলিনী এবে স্বথে দুখে চিরকাল সম্পদে বিপদে আমারই সাথে সাথে করিছে ভ্রমণ । চিরহান্তময় তার প্ৰেমদৃষ্টি মেলি আমারি মুখের পানে রয়েছে চাহিয়া ।