পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (অচলিত) প্রথম খণ্ড.pdf/৫৬৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


সরস্বতী । বাল্মীকিপ্রভিভ। তুমিই কি দেবী ভারতী কৃপাগুণে অন্ধ জাখি ফুটালে, উষা জানিলে প্রাণের আঁধারে, প্রকৃতির রাগিণী শিখাইলে ? তুমি ধন্ত গো, রব’ চিরকাল চরণ ধরি তোমারি । গৌড় মল্লার হৃদয়ে রাখ, গো দেবি, চরণ তোমার । এস, মা করুণারাণী, ও বিধু-বদনখানি হেরি হেরি অঁাখি ভরি হেরিব আবার । এস আদরিণী বাণী সমূখে আমার । মৃদু মৃদু হাসি হাসি বিলাও অমৃতরাশি— আলোয় করেছ আলো, ক্ষেহের প্রতিমা, তুমি গো লাবণ্যলতা, মূৰ্ত্তি মধুরিমা । বসন্তের বনবালা, অতুল রূপের ভালা, মায়ার মোহিনী মেয়ে ভাবের আধার, ঘুচাও মনের মোর সকল আধার । আদর্শন হ’লে তুমি ত্যেজি লোকালয়ভুমি অভাগা বেড়াবে কেঁদে নিবিড় গহনে— হেরে মোরে তরুলতা বিষাদে কবে না কথা বিষণ্ণ কুহমকুল বনফুল-বনে । ‘হা দেৰী’ ‘হা দেবী’ বলি গুপ্ৰরি কাদিবে আলি, ঝরিবে ফুলের চোখে শিশির-আসার – হেরিব জগত শুধু আধার । আঁধার ! দীনহীন বালিকার সাজে, আইই এ ঘোর বনমাঝে, গলাতে পাষাণ তোর মন, কেন, বৎস, শোন তাহা, শোন । আমি বীণাপাণি, তোরে এসেছি শিখাতে গান ! Q 3)