পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (অচলিত) প্রথম খণ্ড.pdf/৬১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


কবি-কাহিনী মাছুষস্থষ্টির অতি জারভ হইতে কি দেখিছ এইখানে দাড়ায়ে দাড়ায়ে ? বা দেখিছ যা দেখেছ তাতে কি এখনো সৰ্ব্বাঙ্গ তোমার গিরি উঠে নি শিহরি ? কি দারুণ অশান্তি এ মহন্যজগতে— রক্তপাত, অত্যাচার, পাপ কোলাহল দিতেছে মানবমনে বিষ মিশাইয়া ! কত কোটি কোটি লোক, অন্ধকারাগারে অধীনতাশূন্থলেতে আবদ্ধ হুইয়া ভরিছে স্বর্গের কর্ণ কাতর ক্রন্দনে, অবশেষে মন এত হোয়েছে নিস্তেজ, কলঙ্কশৃঙ্খল তার অলঙ্কাররূপে আলিঙ্গন ক’রে তারে রেখেছে গলায় ! স্বাসত্বের পদধূলি অহঙ্কার কোরে মাথায় বহন করে পরপ্রত্যাশীরা । যে পদ মাথায় করে ঘৃণার আঘাত সেই পদ ভক্তিভরে করে গো চুম্বন ! ষে হস্ত ভ্রাতারে তার পরায় শৃঙ্খল, সেই হস্ত পরশিলে স্বর্গ পায় করে। স্বাধীন, সে অধীনেরে দলিবার তরে, অধীন, সে স্বাধীনেরে পূজিবারে শুধু ! সবল, সে কুৰ্ব্বলেরে পীড়িতে কেবল— দুৰ্বল, বলের পদে আত্ম বিসজিতে । স্বাধীনত কারে বলে জানে যেই জন কোথায় সে অসহায় অধীন জনের কঠিন শৃঙ্খলরাশি দিবে গো ভাঙ্গিয়া, না, তার স্বাধীন হস্ত হোয়েছে কেবল অধীনের লৌহপাশ দৃঢ় করিবারে । সবল দুৰ্ব্বলে কোথা সাহায্য করিবে— ছুর্কলে অধিকতর করিতে ছৰ্ব্বল 8 Y