পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (অচলিত) প্রথম খণ্ড.pdf/৬৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


88 রবীন্দ্র-রচনাবলী কেহ কারো দুখে মাহি করে উপহাস! দ্বেষ নিন্দা কুরতার জঘন্য আসন ধৰ্ম্ম-আবরণে মাহি করে গে। সজ্জিত ! হিমাদ্রি, মানুষস্থষ্টি-আরম্ভ হইতে অতীতের ইতিহাস পড়েছ সকলি, অতীতের দীপশিখা যদি হিমালয় ভবিষ্কং অন্ধকার পারে গো ভেদিতে তবে বল কবে, গিরি, হবে সেই দিন ষে দিন স্বৰ্গই হবে পৃথ্বীর আদর্শ ! সে দিন আসিবে গিরি, এখনিই যেন দূর ভবিষ্কং সেই পেতেছি দেখিতে যেই দিন এক প্রেমে হুইয়। নিবদ্ধ মিলিবেক কোটি কোটি মানবহৃদয় । প্রকৃতির সব কার্য্য অতি ধীরে ধীরে, এক এক শতাব্দীর সোপানে সোপানে— পৃথ্বী সে শাস্তির পথে চলিতেছে ক্রমে, পৃথিবীর সে অবস্থা আসে নি এখনো কিন্তু এক দিন তাহা আসিবে নিশ্চয় । আবার বলি গে। আমি হে প্রকৃতিদেবি যে, অাশা দিয়াছ হৃদে ফলিবেক তাহা, এক দিন মিলিবেক হৃদয়ে হৃদয় । এ যে সুখময় অাশা দিয়াছ হৃদয়ে ইহার সঙ্গীত, দেবি, শুনিতে শুনিতে পারিব হরষচিতে ত্যজিতে জীবন!” সমস্ত ধরার তরে নয়নের জল বৃদ্ধ সে কবির নেত্র করিল পূর্ণিত ! যথা সে হিমাদ্রি হোতে ঝরিয়া ঝরিয়া কত নদী শত দেশ করয়ে উৰ্ব্বল্লা ।