পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (অচলিত) প্রথম খণ্ড.pdf/৮৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


बन-कूल ●〉 জিজ্ঞাসা করি গো শেষে স্বতে লয়ে ক্রোড়দেশে কে তুমি কুটারমাঝে বসি স্থধাননা ?” পাগলিনীপ্রায় বালা হৃদয়ে পাইয়া জালা চমকিয়া বসে ৰেন জাগিয়া স্বপনে । श्रिंख्ठििन वङ्गन-'श्रष्टव्र बञ्जन निदिट्ठे कु'८ब्र। স্থির হু’য়ে বসি রয় ব্যাকুলিত মনে । নয়নে সলিল করে, বালিকা সমুচ্চ স্বরে বিষাদে ব্যাকুলকদে কহে “পিতা— পিতা” । কে দিবে উত্তর তোর, প্রতিধ্বনি শোকে ভোর রোদন করিছে সেও বিষাদে তাপিতা । ধরিয়া পিতার গলে আবার বালিকা বলে উচ্চৈস্বরে পিতা— পিতা”, উত্তর না পায় ! তরুণী পিতার বুকে বাহুতে ঢাকিয়া মুখে, অবিরল নেত্রজলে বক্ষ ভাসি যায় । শোকানলে জল ঢালা সাঙ্গ হ’লে উঠে বালা, শৃঙ্গ মনে উঠি বসে জাখি আশ্রময় ! বসিয়া বালিকা পরে নিরথি পথিকবরে সজল নয়ন মুছি ধীরে ধীরে কয়, "কে তুমি জিজ্ঞাসা করি, কুটীরে এলে কি করি— আমি যে পিতারে ছাড়া জানি না কাহারে ! পিতার পৃথিবী এই, কোনদিন কাহাকেই দেখি নি ত এখানে এ কুটীরের দ্বারে । কোথা হ’তে তুমি আজ আইলে পৃথিবীমাক ? কি ব’লে তোমারে আমি করি সম্বোধন ? তুমি কি তাহাই হবে পিতা বাহাজের সবে 'মানুষ’ বলিয়া আহা করিত রোদন ? কিম্ব জাগি প্রাতঃকালে যাদের দেবতা ব’লে নমস্কার করিতেন জনক আমার ? বলিতেন ৰায় দেশে মরণ হইলে শেষে যেতে হয়, সেখাই কি নিবাস তোমার –