পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (ঊনবিংশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/১৪২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


SWO8 রবীন্দ্র-রচনাবলী ক্ষাস্তমণি। না, ভাই, তার আর যাই দোষ থাক, তোদের শব্দভেদী বাণ তাকে পৌছয় না, সে আমি খুব দেখে নিয়েছি। ইন্দু। অর্থাৎ, আমাদের চন্দ্রের যা কলঙ্ক সেটা কেবল মুখের উপরে, তার জ্যোংস্নায় কোনো দাগ পড়ে না । তোমাদের লক্ষ্মীছাড়া দলে আর কে আছে নাম করো দেখি । ক্ষান্তমণি। আর-একজন আছে, তার নাম গদাই । ইন্দু। আরে, ছি ছি, ছিছি! অমন নাম যার তার খড় খড়ে চিরদিন যেন বোজ থাকে । ক্ষণস্তমণি। নাম শুনেই যে তোর— ইন্দু। নামের দাম কম নয় দিদি । ভেবে দেখো তো, দৈবদুর্যোগে গদাই যদি ‘কাননকুমূমিকা'র কবি হত তা হলে কবির নাম জপ করবার সময় দিদি কী মুশকিলেই পড়ত। ভক্তি হত না, সুতরাং মুক্তিও পেত না । কমল । দিদির মুক্তির জন্যে তোমাকে অত ভাবতে হবে না। এখন নিজের কথা চিস্তা করবার সময় হয়েছে। ইন্দু। সেইজন্যেই তো নাম বাছাই করতে লেগে গেছি। সময় নষ্ট করতে চাই নে। আমার স্বয়ম্বরসভায় নিমন্ত্রণের ফর্দ থেকে গদাই নামটা কাটা পড়ল । কমল । তা হলে এইবেলা তোমার পছন্দসই নামের একটা ফর্দ করা যাক । কুমুদ কিরকম ? ইন্দু। চলে যায়। কমল । নিকুঞ্জ ? ইন্দু। চলতেও পারে, কিন্তু উপবাসের মুখে, অর্থাৎ দ্বাদশী তিথিতে । কমল। পরিমল ? ইন্দু। মালাবদলের সময় নাম-বদল করতে হবে, সে হবে ইন্দু আমি হব পরিমল । যা হোক এগুলো চলতেও পারে— কিন্তু গদাই ? নৈব নৈব চ। ক্ষান্ত। কী যে পাগলামি করছিস ইন্দু! চল, আমার কাজ আছে। দ্বিতীয় দৃশ্য চন্দ্রবাবুর বাসা চন্দ্র। ভাই বিন্দা, তোমাকে দেখে বোধ হচ্ছে, আজ তোমার ভালোমন্দ একটাকিছু হল বলে, কিম্বা হয়েই বসেছে।