পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (ঊনবিংশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/১৯৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


রবীন্দ্র-রচানবলী واسbلا শিবচরণ। সে তেমন মেয়েই নয়। তার টাকা আছে ঢের, কিন্তু চেহারা দেখে পাত্র এগোয় না। আমার বংশের এই অকাল কুষ্মাণ্ডের মতো এত বড়ো বঁদের দ্বিতীয় আর কোথায় পাবে ষে তাকে বিয়ে করতে রাজি হবে। চন্দ্রকান্ত । সে আমার উপর ভার রইল। আমি সমস্ত ঠিকঠাক করে দেব। এখন নিশ্চিন্ত মনে নিবারণবাবুর মেয়ের সঙ্গে বিবাহ স্থির করুন। ● শিবচরণ। যদি পার চন্দর, তো বড়ো উপকার হয়। এই বাগবাজারের হাত থেকে মানে মানে নিস্তার পেলে বাচি । এ দিকে আমি নিবারণের কাছে মুখ দেখাতে পারছি নে, পালিয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছি। চন্দ্রকাস্ত । সেজন্যে কোনো ভাবনা নেই। আমি প্রায় অর্ধেক কাজ গুছিয়ে এসে তবে আপনাকে বলছি। এখন বাকিটুকু সেরে আসি । [ প্রস্থান নিবারণের প্রবেশ শিবচরণ। আরে এসো ভাই, এসো। নিবারণ । ভালো আছ ভাই ? যা হোক শিবু, কথা তো স্থির ? শিবচরণ। সে তো বরাবরই স্থির আছে, এখন তোমার মরজি হলেই হয়। নিবারণ। আমারও তো সমস্ত ঠিক হয়ে আছে, এখন হয়ে গেলেই চুকে যায়। শিবচরণ। তবে আর কি, দিনক্ষণ দেখে— নিবারণ। সে-সব কথা পরে হবে— এখন কিছু মিষ্টিমুখ করবে চলো । শিবচরণ। না ভাই, আমার অভ্যাস নেই, এখন থাকৃ— অসময়ে খেয়েছি কি আর আমার মাথা ধরেছে— নিবারণ। না না, সে হবে না, কিছু খেতে হচ্ছে। বাপু, তুমিও এসো । [ প্রস্থান কমল ও ইন্দুর প্রবেশ কমল। ছিছি, ইন্দু, তুই কী কাণ্ডটাই করলি বল দেখি ? ইন্দু। তা বেশ করেছি। ভাই, পরে গোল বাধার চেয়ে আগে গোল চুকে যাওয়া ভালো । কমল। এখন পুরুষ জাতটাকে কী রকম লাগছে। ইন্দু। মন্দ না ভাই, একরকম চলনসই। কমল। তুই যে বলেছিলি ইন্দু, গদাই গয়লাকে তুই কক্‌খনো বিয়ে করবি নে ! ইন্দু। না ভাই, গদাই নামটি খারাপ নয়, তা তোমরা যাই বল। তোমার