পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (ঊনবিংশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/২৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


১৩ ৯ মাঘ ১৩৪০ রবীন্দ্র-রচনাবলী কোন পার হতে এনে দিলে মোর পারে অনাদি যুগের চিরমানবীর হিয়া । দেশের কালের অতীত যে মহাদুর, তোমার কণ্ঠে শুনেছি তাহারি স্বর— বাক্য সেথায় নত হয় পরাভবে। অসীমের দূতী, ভরে এনেছিলে ডালা পরাতে আমারে নন্দন-ফুলমালা অপূর্ব গৌরবে । সত্যরূপ অন্ধকারে জানি না কে এল কোথা হতে – মনে হল তুমি ; রাতের লতা-বিতান তারার আলোতে উঠিল কুমূমি । সাক্ষ্য আর কিছু নাই, আছে শুধু একটি স্বাক্ষর, প্রভাত-আলোক তলে মগ্ন হলে প্রস্বগু প্রহর পড়িব তখন । ততক্ষণ পূর্ণ করি থাক্ মোর নিস্তব্ধ অন্তর তোমার স্মরণ । কত লোক ভিড় করে জীবনের পথে উড়াইয়া ধূলি ; কত যে পতাকা ওড়ে কত রাজপথে আকাশ আকুলি । প্রহরে প্রহরে যাত্রী ধেয়ে চলে খেয়ার উদ্দেশে— অতিথি আশ্রয় মাগে প্রাস্তদেহে মোর দ্বারে এসে দিন-অবসানে, দূরের কাহিনী বলে, তার পরে রজনীর শেষে যায় দূরপানে ।