পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (ঊনবিংশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৫৩৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


যাত্রী 0.२७ এসে পাল নামালে, সে কত আশঙ্কায় অথচ কত প্রত্যাশায় ভরা দিন। গাছপালা জীবজন্তু মানুষজন সেদিন সমস্তই নতুন। আর আজ ! সমস্তই সম্পূর্ণ পরিজ্ঞাত, সম্পূর্ণ অধিকৃত। এদের কাছে আমাদের হার মানতে হয়েছে। কেন, সেই কথা ভাবি । তার প্রধান কারণ, আমরা স্থিতিবান জাত, আর ওরা গতিবান। অন্তোন্ততন্ত্র সমাজবন্ধনে আমরা আবদ্ধ, ব্যক্তিগত স্বাতন্ত্র্যে ওরা বেগবান। সেই জন্তেই এত সহজে ওরা ঘুরতে পারল । ঘুরেছে বলেই জেনেছে আর পেয়েছে। সেই কারণেই জানবার ও পাবার আকাঙ্ক্ষ ওদের এত প্রবল। স্থির হয়ে বসে থেকে আমাদের–ষ্ট্রেআকাঙ্ক্ষাটাই ক্ষীণ হয়ে গেছে। ঘরের কাছেই কে আছে, কী হচ্ছে, ভালো করে তা । জানি নে, জানবার ইচ্ছাও হয় না । কেননা, ঘর দিয়ে আমরা অত্যন্ত ঘেরা। জানবার জোর নেই যাদের, পৃথিবীতে বাঁচবার জোর তাদের কম। এই ওলন্দাজরা যে-শক্তিতে জাভাৰীপ সকলরকমে অধিকার করে নিয়েছে, সেই শক্তিতেই জাভাৰীপের পুরাতত্ব অধিকার করবার জন্তে তাদের এত পণ্ডিতের এত একাগ্রমনে তপস্তা। অথচ, এ পুরাতত্ত্ব অজানা নতুন দ্বীপেরই মতো তাদের সঙ্গে সম্পূর্ণ সম্বন্ধশুস্ত। নিকটসম্পৰ্কীয় জ্ঞানের বিষয় সম্বন্ধেও আমরা উদাসীন, দূরসম্পৰ্কীয় জ্ঞান সম্বন্ধেও এদের আগ্রহের অন্ত নেই। কেবল বাহুবলে নয়, এই জিজ্ঞাসার প্রবলতায় এরা জগৎটাকে অস্তরে বাহিরে জিতে নিচ্ছে। আমরা একান্তভাবে গৃহস্থ । তার মানে, আমরা প্রত্যেকে আপন গার্হস্থ্যের অংশমাত্র, দায়িত্বের হাজার বন্ধনে বাধা । জীবিকাগত দায়িত্বের সঙ্গে অনুষ্ঠানগত দায়িত্ব বিজড়িত। ক্রিয়াকর্মের নিরর্থক বোঝা এত অসহ বেশি যে, অন্ত সকল যথার্থ কর্ম তারই ভারে অচলপ্রায় । জাতকর্ম থেকে আরম্ভ করে প্রাদ্ধ পর্যন্ত ষে-সমস্ত কৃত্য ইহলোক পরলোক জুড়ে আমাদের স্বন্ধে চেপেছে তাদের নিয়ে নড়াচড়া অসম্ভব, আর তারা আমাদের শক্তিকে কেবলই শোষণ করে নিচ্ছে। এই-সমস্ত ঘরের ছেলেরা পরের হাতে মার খেতে বাধ্য। এ কথাটা আমরা ভিতরে ভিতরে বুঝতে পারছি। এইজন্তে আমাদের নেতারা সন্ন্যাসের দিকে এতটা ঝোক দিয়েছেন। অথচ, তারা সনাতনধর্মকেও ধ্রুব সত্য বলে ঘোষণা করেন। কিন্তু, আমাদের সনাতনধর্ম গার্হস্থ্যের উপরে প্রতিষ্ঠিত। সস্ত্রীকং ধর্মমাচরেং । আমাদের দেশে বিস্ত্রীক ধর্মের কোনো মানে নেই। i ধারা সনাতনধর্মের দোহাই দেন না, তারা বলেন, ক্ষতি কী। কিন্তু, বহু যুগের সমাজব্যবস্থার পুরাতন ভিত্তি যদি-বা ভাঙা সহজ হয় তার জায়গায় নতুন ভিত্তি গড়বে কতদিনে। কর্তব্য-অকর্তব্য সম্বন্ধে প্রত্যেক সমাজ কতকগুলি নীতিকে সংস্কারগত