পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (ঊনবিংশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৫৪৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


গ্রন্থপরিচয় 2●〉 প্রসঙ্গত ইহা উল্লেখ করা যাইতে পারে যে, জাপানযাত্রীর চতুর্দশ পরিচ্ছেদের শেষে শিল্পী শিমোমুরার জাক জন্ধের স্বর্ধবন্দনার যে-চিত্রটির বর্ণনা আছে তাহার একটি রঙিন প্রতিলিপি রবীন্দ্রনাথ জাপান হইতে রচনা করাইয়া আনেন । ‘পশ্চিমষাত্রীর ডায়ারি’-তে ২৬ সেপ্টেম্বর ১৯২৪ তারিখে লেখা দ্বিতীয় পত্রের আরম্ভে এই চিত্রটির পুনরুল্লেখ রহিয়াছে। চিত্রটি বর্তমানে শাস্তিনিকেতনের কলাভবনে রক্ষিত আছে। জাপানযাত্রী গ্রন্থের শতবর্ষপূর্তি সংস্করণে ( জ্যৈষ্ঠ ১৩৬৯ ) পরিশিষ্টে ও গ্রন্থপরিচয়ে রবীন্দ্রনাথের জাপানভ্রমণ সংক্রাস্ত বহু তথ্য, চিঠিপত্র, ভাষণ ও অন্তান্ত রচনা একত্র সংকলন করা হইয়াছে। এই সংস্করণ সচিত্র। যাত্রী যাত্রী ১৩৩৬ সালের জ্যৈষ্ঠে গ্রন্থাকারে প্রকাশিত হয়। ‘পশ্চিমষাত্রীর ডায়ারি’ অংশ প্রবাসীতে অগ্রহায়ণ ১৩৩১ হইতে জ্যৈষ্ঠ ১৩৩২ পর্যন্ত বিভিন্ন সংখ্যায় প্রথম মুত্রিত হইয়াছিল। ১৩৩৩ সালের ফানের প্রবাসীতে উক্ত ডায়ারির কিছু নূতন অংশ উদ্ভূত্ত’ নামে বাহির হয় এবং যাত্রীর প্রথম সংস্করণে ‘পরিশিষ্ট"রূপে (পৃ. ১৩৫-১৬২ ) মুদ্রিত হয়। উহার মুখবন্ধস্বরূপ রবীন্দ্রনাথ প্রবাসীতে যাহা লিথিয়াছিলেন নিয়ে মুদ্রিত হইল : ‘গাছতলায় শুকনো পাতার নীচে ঝড়ে-পড়া কাচাপাকা ফল কিছু-না কিছু পাওয়া যায়। আমার আবর্জিত ছিন্ন পাতার মধ্য থেকে ষে লেখার টুকরোগুলি আমার তরুণ বন্ধু’ কুড়িয়ে পেয়েছেন, মনে হচ্ছে, সেগুলি সাহিত্যের ভোজে ব্যবহার করার বাধা নেই। তাই তিনি যখন ভাণ্ডারে তোলবার প্রস্তাব করলেন আমি সম্মতি দিলাম।” যাত্রীর দ্বিতীয় সংস্করণে (জ্যৈষ্ঠ ১৩৪২ ) উক্ত উদ্ধৃবৃত্ত পরিশিষ্ট অংশগুলিকে তাহাদের রচনার তারিখ অনুসারে ভায়ারির ভিন্ন ভিন্ন স্থানে সন্নিবেশিত করা হইয়াছিল। ‘পশ্চিমঘাত্রীর ডায়ারি’র বর্তমান মুদ্রণে প্রধানতঃ যাত্রীর প্রথম সংস্করণ श्रकूश्रङ इक्वेल । রবীন্দ্রনাথ ১৯২৪ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর দক্ষিণ আমেরিক যাত্রা করেন তাদের শতবাধিক উৎসবে যোগ দেবার জন্তে", এবং ১৯২৫ সালের ১৭ ফেব্রুয়ারি দেশে প্রত্যাবর্তন করেন। পূরবী কাব্যের পথিক' অংশের কবিতাগুলি এই সময়ের রচনা বলিয়া তাহাঙ্গের অনেক পরিচয় পশ্চিমঘাত্রীর ডায়ারির নানা স্থানে পাওয়া যায়। ২৮ ও ২৯ সেপ্টেম্বর ( ১৯২৪ ) এই দুই তারিখের দুইটি ডায়ারি-অংশে শুভ-ইচ্ছা’ ১ গ্ৰীঅমিয়চত্র চক্রবর্তী ।