পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (ঊনবিংশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৬৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


রবীন্দ্র-রচনাবলী আজি এই চৈত্রের প্রভাতে আছ তুমি সকলের সাথে, এ কথাটি মনে প্রাণে কহো । ৭ এপ্রিল ১৯৩৪ জোড়াসাঁকে দেবদারু দেবদারু, তুমি মহাবাণী । দিয়েছ মেনের বক্ষে প্রাণমন্ত্র আনি— যে প্রাণ নিস্তব্ধ ছিল মরুদুর্গতলে প্রস্তরখৃস্থলে কোটি কোটি যুগযুগান্তরে । যে প্রথম যুগে তুমি দেখা দিলে নির্জন প্রাস্তরে, রুদ্ধ অগ্নিতেজের উচ্ছ্বাস উদ্‌ঘাটন করি দিল ভবিষ্যের ইতিহাস— জীবের কঠিন দ্বন্দ্ব অন্তহীন, দুঃখে মুখে যুদ্ধ রাত্রিদিন, জেলে ক্ষোভহুতাশন আন্তরবিবরে যাহা সৰ্পসম করে আন্দোলন শিখার রসন অশাস্ত বাসনা । স্নিগ্ধ স্তব্ধ রূপে খামল শাস্তিতে তুমি চুপে চুপে ধরণীর রঙ্গভূমে রচি দিলে কী ভূমিকা— তারি মাঝে প্রাণীর হৃদয়রক্তে লিখা মহানাট্য জীবনমৃত্যুর, কঠিন নিষ্ঠুর দুর্গম পথের দুঃসাহস।