পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (ঊনবিংশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৯৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


রবীন্দ্র-রচনাবলী দিনশেষে আসে গোধূলির বেলা ধূসর রক্তরাগে ঘরের কোণায় দীপ জালাবার আগে ; নীড়ে-ফেরা কাক দিয়ে শেষ ডাক উড়িল আকাশতলে, শেষ-আলো-আভা মিলায় নদীর জলে । হাওয়া থেমে যায় বনের শাখায় আঁধার জড়ায়ে ধরে ; নির্জন ছায়া কাপে ঝিল্লির স্বরে । তখন একাকী সব কাজ রাখি প্রাসাদ-ছাদের ধারে দাড়াও যখন নীরব অন্ধকারে জানি না তখন কী যে নাম তব, চেনা তুমি নহ আর, কোনো বন্ধনে নহ তুমি বাধিবার । সেই ক্ষণকাল তব সঙ্গিনী স্বদূর সন্ধ্যাতারা, সেই ক্ষণকাল তুমি পরিচয়হারা। দিবসরাতির সীমা মিলে যায় 5 নেমে এস তারপরে, ঘরের প্রদীপ আবার জালাও ঘরে । ১৪ মাঘ ১৩৩৮] বাধা পূর্ণ করি নারী তার জীবনের থালি প্রিয়ের চরণে প্রেম নিঃশেষিয়া দিতে গেল ঢালি, ব্যর্থ হল পথ-খোজা— কহিল, “হে ভগবান, নিষ্ঠুর যে এ অর্ঘ্যের বোঝা ;