পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (ঊনবিংশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৯৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বীথিক। আমার দিবস রান্ত্রি অসহ পেষণে একান্ত পীড়িত আর্ত ; তাই সানার অন্বেষণে এসেছি তোমার দ্বারে— এ প্রেম তুমিই লও প্ৰভু ! ‘লও লও’ বারবার ডেকে বলে, তবু দিতে পারে না যে তাকে কৃপণের ধন-সম শিরা মাকড়িয়া থাকে । যেমন তুষাররাশি গিরিশিরে লগ্ন রহে, কিছুতে স্রোত না বহে, আপন নিষ্ফল কঠিনতা দেয় তারে ব্যথা, তেমনি সে নারী নিশ্চল-হৃদয়ভারে-ভারী কেঁদে বলে, “কী ধনে আমার প্রেম দামী সে যদি না বুঝেছিল, তুমি অন্তর্ষামী, তুমিও কি এরে চিনিবে না ? মানবজন্মের সব দেনা শোধ করি লও, প্রভু, আমার সর্বস্ব রত্ব নিয়ে । তুমি যে প্রেমের লোভী মিথ্যা কথা কি এ ! ‘লও লও’ যত বলে খোলে না যে তার হৃদয়ের দ্বার । সারাদিন মন্দিরা বাজায়ে করে গান, ‘লও তুমি লও ভগবান ? ৩ অগস্ট ১৯৩২ দুই সখী দুজন সখীরে দূর হতে দেখেছিন্থ অজানার তীরে। ህ»ዓል