পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (ঊনবিংশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৯৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


NG|o বীথিক। ছায়াচ্ছন্ন যে লজ্জায় প্রকাশের দীপ্তি ফেলে মুছি, সত্তার ঘোষণাবাণী স্তন্ধ করে, জেনো সে অশুচি । উধ্ব শাখা বনম্পতি যে ছায়ারে দিয়েছে আশ্রয় তার সাথে আলোর মিত্রতা, সমুন্নত সে বিনয় । মাটিতে লুটিয়ে গুল্ম সর্ব অঙ্গ ছায়াপুঞ্জ করি, তলে গুপ্ত গহবরেতে কীটের নিবাস । হে স্বন্দরী, মুক্ত করো অসম্মান, তব অপ্রকাশ আবরণ। হে বন্দিনী, বন্ধনেরে কোরো না কৃত্রিম আভরণ । সজ্জিত লজ্জার খাচা, সেথায় আত্মার অবসাদ অর্ধেক বাধায় সেথা ভোগের বাড়ায়ে দিতে স্বাদ ভোগীর বাড়াতে গর্ব খর্ব করিয়ো না আপনারে খণ্ডিত জীবন লয়ে আচ্ছন্ন চিত্তের অন্ধকারে । ৬ মাঘ [ ১৩৩৮ ] ”یے দুর্ভাগিনী তোমার সম্মুখে এসে, দুর্ভাগিনী, দাড়াই যখন নত হয় মন । যেন ভয় লাগে প্রলয়ের আরম্ভেতে স্তব্ধতার অাগে । এ কী দুঃখভার, কী বিপুল বিষাদের স্তম্ভিত নীরন্ধ্র অন্ধকার ব্যাপ্ত করে আছে তব সমস্ত জগৎ তব ভূত ভবিষ্যৎ ! প্রকাও এ নিস্ফলতা, অভ্ৰভেদী ব্যথা দণবদগ্ধ পর্বতের মতো ఏ:)