পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (একবিংশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/১৮৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


তপতী Ꮌ☾Ꮔ নরেশ । চলে গেলেন । বিপাশা ৷ কে চলে গেলেন । নরেশ । আমাদের মহারানী । বিপাশা । কোথায় চলে গেলেন । নরেশ। জান না তুমি ? বিপাশা। না । নরেশ । তিনি গেছেন একলা ঘোড়ায় চড়ে কাশ্মীরের পথে । বিপাশা | বলে বলো, সব কথাটা বলে । নরেশ । পত্র পাঠিয়েছেন তিনি আর ফিরবেন না। ধ্রুবতীর্ষে মার্তগুমন্দিরে আতিশ্রয় নেবেন । বিপাশ । আহা, কী আনন্দ । মুক্তি এতদিন পরে ! * নরেশ । বিপাশা, তাকে তো বাধতে কেউ পারে নি । বিপাশা। শিকল পরাতে পারে নি, খাচায় রেখেছিল। পাখা বাধিয়ে দিয়েছিল সোনা দিয়ে। ধরতে গিয়ে তাকে হারাল। এই হারানোর কী অপূর্ব মহিমা । স্বর্ধাস্তরশ্মির পশ্চিমঘাত্রা । কিন্তু এই অন্ধর কি এর পুণ্যরূপের ছটা দেখতে পেলে । নরেশ । আমরা যাব তাকে ফেরাতে। এতক্ষণে তিনি গেছেন নন্দীগড়ের মাঠের কাছে । বিপাশা | যেয়ো না যেয়ে না, তিনি তোমাদের নন ; তাকে পাওনি, পাবেও না । আজ ভাঙা-উৎসবের ভিতর দিয়ে তিনি ছাড়া পেলেন পাষাণের বুকফাট নিবরের মতো। இ. গান প্রলয়-নাচন লাচলে যখন আপন ভুলে ছে নটরাজ, শুটার বাধন পড়ল খুলে । জাহ্নবী তাই মুক্তধারায় ऐंठग्रांभिनेो भित्र झांब्रांब्र, সংগীতে তার তরঙ্গদল উঠল জ্বলে । রবির আলো সাড়া দিল আকাশপারে। শুনিয়ে দিল অভয়বাণী ঘরছাড়ারে । আপন স্রোতে আপনি মাতে, সাথি হল আপল সাথে, সবহার লে লৰ পেল তার কূলে কুলে । १919२