পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (একবিংশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/২০০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


S१२ . রবীন্দ্র-রচনাবলী ২ । এর পিছনে আছে খুড়োরাজা । নাগপত্তন ওকে কিছুতেই মানে নি কিনা, এবার তারই শোধ নিলে বিদেশীকে দিয়ে । ৩ । তা হলে অনেক পত্তনেরই লীলা সাঙ্গ হবে । দেবদত্তের প্রবেশ দেবদত্ত । শোনো শোনো, তোমাদের মধ্যে কুন্তীপুরের মানুষ কেউ আছ ? ১ । কেন বলো তো । দেবদত্ত । চন্দ্রসেনের সঙ্গে বিক্রম মহারাজের পরামর্শ হয়েছে, সেখানে সৈন্ত পাঠাবেন উৎপাত করবার জন্তে । ২ । আপনি কে হন মহাশয় । বিদেশী বলে বোধ হচ্ছে । দেবদত্ত । হা বিদেশী । ৩ । জালন্ধরের মাহব ? দেবদত্ত । ঠিক ঠাউরেছ। ১ । তোমার এতটা ধর্মবুদ্ধি হল কেমন করে । দেবদত্ত । বিধাতার আশ্চর্ষ মহিমায় কদাচিৎ এমনতরো ঘটে। তোমাদের কাশ্মীরে চন্দ্রসেন যে বংশে জন্মেছেন সে বংশেও ভদ্রমানুষ জন্মায় দেখেছি। ২ । বেশ বলেছেন, ঠাকুর, বেশ বলেছেন। ব্রাহ্মণ তো ? দেবদত্ত । হা, ব্রাহ্মণ । সকলে। প্রণাম হই । ২ । নিজের রাজার বিরুদ্ধে আপনি— দেবদত্ত। রাজার বিরুদ্ধে বল একে কোন বুদ্ধিতে । আমার রাজার পাপ যতটা নিবারণ করব আমার রাজভক্তি ততটাই সার্থক হবে। ৩ । কিন্তু বিপদ আছে তো ঠাকুর, রাজা যদি— দেবদত্ত । রাজার হয়ে আজ যারা অন্যায় করছে, বিপদের আশঙ্কা অামার চেয়ে তাদের তো কম নয় । অধৰ্ম যদি সাহস দিতে পারে, ধর্ম কি ভীরু হবে । ২। খুব বড়ো কথা বললে ঠাকুর । দাও, আর-একবার পায়ের ধুলো দাও। দেবদত্ত। যুবরাজ কুমারলেন এখান থেকে পালাতে পেরেছেন ? ১ । ঠাকুর, মাপ করে, ওইটে পারব না, যুবরাজের কথা তোমার সঙ্গেও চলবে না | দেবদত্ত । কিছু বলতে হবে না, আমি জানতে চাই, তিনি নিরাপদ তো ?