পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (একবিংশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/২০১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


তপর্তী ›ፃe ১। আপদ-বিপদের কথা কে বলতে পারে। তবে কিনা আমাদের চেষ্টার ক্রটি হবে না । ৩ । দেখো দেখো, ওই পশ্চিম পাহাড়ে । বোধ হচ্ছে অচলেশ্বরের কাছে ওরা আগুন লাগিয়েছে । বনটা স্বদ্ধ জলে উঠেছে । অকণরণ সর্বনাশ করতে এল কেন এরা ! খিদে পেলে বাঘে খায়, ভয় পেলে সাপে তাড়া করে আলে, এদের এ যে নিষ্কাম পাপ, অহৈতুক হিংসা। এরা কোন জাতের মানুষ, ঠাকুর। দেবদত্ত। দৈত্য, দৈত্য । দেবতার পরে এদের বিশুদ্ধ বিদ্বেষ । ওরে উন্মত্ত দুবৃত্ত অন্ধ, তোমার মহাপাতক তোমাকে মহাপতনে নিয়ে চলল, আজ কে তোমাকে বঁাচাতে পারে। ধিক্ তোমার বন্ধুদের । [ প্রস্থান বিক্রম ও চরের প্রবেশ . বিক্রম। কী বললে। সন্ধান পাওয়া গেল না ? চর । না মহারাজ । বিক্রম । তবে যে চন্দ্রসেন বললেন, এইখানেই তার অভিষেক হচ্ছিল । সে তো বেশিক্ষণের কথা নয় । চর। এইমাত্র দেখলুম তার ঘোড়া ফিরিয়ে আনছে। তিনি প্রবেশ করেছেন শভূপ্রস্থের বনে । সেখানে গুহার পথে অদৃগু হতে মুহূর্তমাত্র বিলম্ব হয় না । বিক্রম । যারা পথ জানে তাদের ধরে অালো । চর । মহারাজ, মরে গেলেও তারা বলবে না । ওখানে সন্ধান করতে যাবে এমন সাহসও কারো নেই। ও যে ভূতে পাওয়া অরণ্য । বিক্রম | ডেকে আনো চন্দ্রসেনকে । চন্দ্রসেনের প্রবেশ কোথায় কুমারলেন ? চন্দ্রলেন। প্রজারা মিলে কোথায় তাকে গোপন করেছে, খুঁজে পাওয়া অসম্ভব। বিক্রম । আগুন লাগাও চারি দিকে, আপনি বেরিয়ে আসবেন। চন্দ্রসেন। কোথায় আছেন না জেনে আগুন লাগানো হিংসার ছেলেমান্থষি । বিক্রম। সন্ধান তুমি জান, গোপন করছ। চন্দ্রলেন। পাপে তো প্রবৃত্ত হয়েছি, তার উপরে মৃঢ়তা যোগ করব, এতবড়ো অর্বাচীন আমি নই। গোপন করে তোমার কাছে নিজের বিপদ কেন ঘটাব । বিক্রম । আমি তোমাকে বিশ্বাস করি নে । סימוצא