পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (একবিংশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৪২১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


छ्न्ल €:్సరి হৃৎপটে আঁকা ছবিখানি ব্যবহার করা আমার পক্ষে সহজ, কিন্তু— হৃৎপত্রে আঁকা ছবিখানি অল্প একটু বাধে। তার কারণ খণ্ড তাঁকে পূর্ণ ত এর জাতে তুলতে হলে তার পূর্ববর্তী স্বরবর্ণকে দীর্ঘ করতে হয় ; এই চুরিটুকুতে পীড়াবোধ হয় না যদি পরবর্তী স্বরটা হ্রস্ব থাকে । কিন্তু, পরবর্তী স্বরটাও যদি দীর্ঘ হয় তা হলে শব্দটার পায়া ভারী হয়ে পড়ে। হৃৎপত্রে এঁকেছি ছবিখানি আমি সহজে মঞ্জুর করি, কারণ এখানে ‘হৎ’ শব্দের স্বরটি ছোটো ও পত্র’ শব্দের স্বরটি বড়ো। রসনা ‘হৃং’ শব্ব দ্রুত পেরিয়ে পত্র’ শব্দে পুরো বোক দিতে পারে। এই কারণেই ‘দিকসীমা' শব্দকে চার মাত্রার আসন দিতে কুষ্ঠিত হই নে, কিন্তু "দিকপ্রাস্ত' শব্দের বেলা ঈষৎ একটু দ্বিধা হয়। শ্ৰীকৃষ্ণ বলেছেন, দরিয়ান ভর কৌন্তেয় । ‘দিকসীমা’ কথাটি দরিদ্র, "দিকপ্রাস্ত' কথাটি পরিপুষ্ট । এ অসীম গগনের তীরে মুংকণা জানি ধরণীরে । মুংকণা’ না বলে যদি ‘মুংপিও বলা যায় তবে তাকে চালিয়ে দেওয়া যায়, কিন্তু একটু যেন ঠেলতে হয়, তবেই চলে। মুং-ভবনে এ কী মুধা রাখিয়াছ হে বস্বধা । কানে বাধে না । কিন্তু— মৃত-ভাণ্ডেতে এ কী স্বধা ভরিয়াছ হে বস্বধা । কিছু পীড়া দেয় না যে তা বলতে পারি নে। কিন্তু, অক্ষর গন্‌তি করে যদি বল ওটা ইনভীডিয়া ডিসটিংশন, তা হলে চুপ করে যাব। কারণ, কান-বেচার প্রিমিটিভ, ইন্দ্রিয়, তর্কবিদ্যায় অপটু। কীর্তিক ১৩৩৯