পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (একবিংশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৯৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


রবীন্দ্র-রচনাবলী সেদিন দিনের অবসালে সজল মেঘের ছায়ে আমার চলার ঠিকানা নাই, ওরা চলল গণয়ে । আলমোড়া ר כיןeן לS যোগীনদী যোগীনদণদণর জন্ম ছিল ডেরাস্মাইলথায়ে । পশ্চিমেতে অনেক শহর অনেক গণয়ে গণয়ে বেড়িয়েছিলেন মিলিটারি জরিপ করার কাজে, শেষ বয়সে স্থিতি হল শিশুদলের মাঝে । “জুলুম তোদের সইব না আর” ইণক চালাতেন রোজই, পরের দিনেই আবার চলত ওই ছেলেদের খোজই । দরবারে তার কোনো ছেলের ফাক পড়বার জো কী— ডেকে বলতেন, “কোথায় টুম্ব, কোথায় গেল খোকি ৷” “ওরে ভজু, ওরে বাদর, ওরে লক্ষ্মীছাড়া ।” ইণক দিয়ে তার ভারী গলায় মাতিয়ে দিতেন পাড়া । চার দিকে র্তার ছোটো বড়ো জুটত যত লোভী কেউ বা পেত মার্বেল, কেউ গণেশমার্কা ছবি । কেউ বা লজঞ্জল, সেটা ছিল মজলিসে তার হাজরি দেবার ঘুষ । কণজলি যদি অকারণে করত অভিমান হেসে বলতেন “ইণ করে তো”, দিতেন ছাচি পান । আপনহুই নাতনিও তার ছিল অনেকগুলি, পাগলি ছিল, পটলি ছিল, আর ছিল জঙ্গুলি । কেয়া-খয়ের এলে দিত, দ্বিত কণস্বন্দিও, মায়ের হাতের জারকলেবু যোগীনদাদার প্রিয় । তখনে তার শক্ত ছিল মুগুর-ভাজা দেহ, বয়স যে বাট পেরিয়ে গেছে, বুৰীত মা তা কেহ ।