পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (একাদশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৩৪৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অচলায়তন \రి:S এ কথা বলবার জন্যে তুমি যে মুখ খুলেছ সে কি এখানকার উত্তর দিকের জানলা খোলার চেয়ে কম পাপ ! [ প্রস্থান মহাপঞ্চক। চলে উপাধ্যায়, আর বিলম্ব নয় । আচার্য অদীনপুণ্য যতক্ষণ এ আয়তনে থাকবেন ততক্ষণ ক্রিয়াকর্ম সমস্ত বন্ধ, ততক্ষণ অামাদের অশৌচ ৷ २ পাহাড়-মাঠ পঞ্চকের গান এ পথ গেছে কোনখানে গো কোনখানে— তা কে জানে তা কে জানে । কোন পাহাড়ের পারে, কোন সাগরের ধারে, কোন তুরাশার দিকপানে— তা কে জানে তা কে জানে । এ পথ দিয়ে কে আসে যায় কোনখানে তা কে জানে তা কে জানে । কেমন যে তার বাণী, কেমন হাসিখানি, যায় সে কাহার সন্ধানে তা কে জানে তা কে জানে । পশ্চাতে আসিয়া শোণপাংশুদলের নৃত্য পঞ্চক । ও কী রে! তোরা কখন পিছনে এসে নাচতে লেগেছিস ? * প্রথম শোণপাংশু। আমরা নাচবার স্থযোগ পেলেই নাচি, পা-দুটোকে স্থির রাখতে পারি নে। দ্বিতীয় শোণপাংশু। আয় ভাই, ওকে স্বদ্ধ কাধে করে নিয়ে একবার নাচি । পঞ্চক। আরে না না, আমাকে ছুস নে রে, ছুস নে । তৃতীয় শোণপাংশু । ঐ রে । ওকে অচলায়তনের ভূতে পেয়েছে। শোণপাংশুকে ও ছোবে না। পঞ্চক । জানিস, আমাদের গুরু আসবেন ? প্রথম শোণপাংশু। সত্যি নাকি! তিনি মানুষটি কী রকম ? তার মধ্যে নতুন কিছু আছে ?