পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (একাদশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৩৮৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অচলায়তন \రిప్రిలి প্রথম বালক। আজ আমাদের খুব ছুটতে ইচ্ছে করছে। তাতে কি দোষ হবে মহাপঞ্চকদাদা ? মহাপঞ্চক । আজকের কথা ঠিক বলতে পারছি নে। আজ কোনো নিয়ম রক্ষণ করা চলবে বলে বোধ হচ্ছে না । প্রথম বালক । আজ তা হলে আমাদের ষড়াসন বন্ধ ? . মহাপঞ্চক । হা বন্ধ । সকলে । ওরে কী মজা রে মজা ! দ্বিতীয় বালক । আজ পঙক্তিধৌতির দরকার নেই ? মহাপঞ্চক । না । সকলে । ওরে কী মজা! আঃ আজ চার দিকে কী আলো । জয়োত্তম । আমারও মনটা নেচে উঠেছে বিশ্বম্ভর । এ কি ভয়, না আনন্দ, কিছুই বুঝতে পারছি নে । বিশ্বম্ভর । আজ একটা অদ্ভূত কাগু হচ্ছে জয়োত্তম। সঞ্জীব । কিন্তু ব্যাপারটা যে কী ভেবে উঠতে পারছি নে। ওরে ছেলেগুলো, তোর হঠাৎ এত খুশি হয়ে উঠলি কেন বল দেখি । প্রথম বালক। দেখছ না সমস্ত আকাশটা যেন ঘরের মধ্যে দৌড়ে এসেছে। দ্বিতীয় বালক । মনে হচ্ছে ছুটি— আমাদের ছুটি । তৃতীয় বালক। সকাল থেকে পঞ্চকদাদার সেই গানটা কেবলই আমরা গেয়ে বেড়াচ্ছি। জয়োত্তম। কোন গান ? প্রথম বালক। সেই ষে— গান আলো, আমার আলো, ওগো আলো ভুবনভরা। আলো নয়ন-ধোওয়া অামার আলো হৃদয়হর । নাচে আলো নাচে– ও ভাই আমার প্রাণের কাছে, বাজে আলো বাজে— ও ভাই হৃদয়-বীণার মাঝে ;