পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (চতুর্দশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/১৬১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


శ్రీ:89 রবীন্দ্র-রচনাবলী পাস্থের পাথেয় হতে খসে পড়ে যাহা ভাঙাচোরা, ধূলিরে বঞ্চনা করি কাড়িয়া তুলিয়া লয় ওরা ; আমি রিক্ত, ওরা রিক্ত, মোর পরে নাই প্রীতিলেশ, মোরে করে দ্বেষ । শুধু শিশু বোঝে মোরে, অামারে সে জানে ছুটি ব’লে, ঘর ছেড়ে আসে তাই চলে । নিষেধ বা অনুমতি মোর মাঝে না দেয় পাহারা, আবশুকে নাহি রচে বিবিধের বস্তুময় কারা, বিধাতার মতো শিশু লীলা দিয়ে শূন্ত দেয় ভরে শিশু বোঝে মোরে । বিলুপ্তির ধূলি দিয়ে যাহা খুশি হৃষ্টি করে তাই, এই আছে এই তারা নাই । ভিত্তিহীন ঘর বেঁধে আনন্দে কাটায়ে দেয় বেলা মূল্য যার কিছু নাই তাই দিয়ে মূল্যহীন খেলা, ভাঙাগড়া দুই নিয়ে নৃত্য তার অখণ্ড উল্লাসে, মোরে ভালোবাসে । সান ইসিড়ো ২৯ ডিসেম্বর, ১৯২৪ মিলন জীবন-মরণের স্রোতের ধারা যেখানে এসে গেছে থামি সেখানে মিলেছিছু সময়হারা একদা তুমি আর আমি । চলেছি আজ এক ভেসে কোথা যে কত দূর দেশে,