পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (চতুর্দশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/১৬৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


, C е রবীন্দ্র-রচনাবলী ফিরিয়াছি দেশ হতে দেশে । শেষে আজ চেয়ে দেখি, ষবে মোর যাত্র হল সারা, দিনের আলোর সাথে স্নান হয়ে এসেছে তাহারা তব স্বারে এসে । রাত্রির নিকষে হায় কত সোনা হয়ে যায় মিছে, সে-বোঝা ফেলিয়া যাব পিছে । কিছু বাকি আছে তবু, প্রাতে মোর যাত্রাসহচরী অকারণে দিয়েছিল মোর হাতে মাধবীমঞ্জরী, আজো তাহ অমান বিরাজে । শিশিরের ছেণয়া যেন এখনো রয়েছে তার গায়, এ জন্মের সেই দান রেখে দেব তোমার থালায় নক্ষত্রের মাঝে । হে নিত্য নবীন, কবে তোমারি গোপন কক্ষ হতে পাড়ি দিল এ ফুল অালোতে । স্বপ্তি হতে জেগে দেখি, বসন্তে একদা রাত্রিশেষে অরুণকিরণ সাথে এ মাধুরী আসিয়াছে ভেসে হৃদয়ের বিজন পুলিনে । দিবসের ধুলা এরে কিছুতে পারে নি কাড়িবারে, সেই তব নিজ দান বহিয়া আনিস্তু তব দ্বারে, তুমি লও চিনে । হে চরম, এরি গন্ধে তোমারি আনন্দ এল মিশে, বুঝেও তখন বুঝি নি সে । তব লিপি বর্ণে বর্ণে লেখা ছিল এরি পাতে পাতে, তাই নিয়ে গোপনে সে এসেছিল তোমারে চিনাতে, কিছু যেন জেনেছি আভাসে । আজিকে সন্ধ্যায় যবে সব শব্দ হল অবসান । অামার ধেয়ান হতে জাগিয়া উঠিছে এরি গান তোমার আকাশে । :ہ ت জুলিয়ে চেজারে জাহাজ 顧 ১০ জানুয়ারি, ১৯২৫