পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (চতুর্দশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/১৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


রবীন্দ্র-রচনাবলী সেদিন আমার হত মনে ঐ সবুজের নিমন্ত্রণে যেন আমার প্রাণের আছে দাবি ; তাই তে। হিয়া ছুটে পালায় ষেতে তারি যজ্ঞশালায়, কোন ভুলে হায় হারিয়েছিল চাৰি । ২ কণর কথা এই আকাশ বেয়ে ফেলে আমার হৃদয় ছেয়ে, বলে দিনে, বলে গভীর রাতে, “ষে-জননীর কোলের পরে জন্মেছিলি মর্ত-ঘরে, প্রাণ ভরা তোর যাহার বেদনাতে, তাহার বক্ষ হতে তোরে কে এনেছে হরণ করে, ঘিরে তোরে রাখে নানান পাকে । বাধন-ছোড়া তোর সে নাড়ী সইবে না এই ছাড়াছাড়ি, ফিরে ফিরে চাইবে অপেন মাকে ।” শুনে আমি ভাবি মনে, তাই ব্যথা এই অকারণে, প্রাণের মাঝে তাই তো ঠেকে ফণকণ, তাই বাজে কার করুণ স্বরে— “গেছিস দূরে, অনেক দূরে,” কী যেন তাই চোখের পরে ঢাকা । তাই এতদিন সকল খানে কিসের অভাব জাগে প্ৰাণে ভালো করে পাই নি তাহা বুঝে ;