পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (চতুর্দশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/২০৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


মুক্তধারা । & $3 ৩। ওরে গবরু, ঝুড়িটা নিয়ে ই করে দাড়িয়ে রইলি কেন ? বিভূতিকে আর কখনো চক্ষে দেখিল নি কি ? মালাগুলো বের কত্ত্ব, পরিয়ে দিই। विडूङि । थांकू थांकू चांद्र नञ्च । ৩। আর নয় তো কী ? যেমন তুমি হঠাৎ মস্ত হয়ে উঠেছ তেমনি তোমার গলাটা যদি উটের মতো হঠাৎ লম্ব হয়ে উঠত আর উত্তরকুটের সব মানুষে মিলে তার উপর তোমার গলায় মালার বোঝা চাপিয়ে দিত তাহলেই ঠিক মানাত । ২ । ভাই, হরিশ ঢাকি তো এখনও এসে পৌঁছোল না। ১। বেটা কুঁড়ের সন্দার, ওর পিঠের চামড়ায় ঢাকের চাটি লাগালে তবে— ৩ । সেটা কাজের কথা নয় । চাটি লাগাতে ওর হাত আমাদের চেয়ে মজবুত । ৪ । মনে করেছিলুম বিশাই সামস্তের রখটা চেয়ে এনে আজ বিভূতিদাদার রথযাত্রা করাব । কিন্তু রাজাই নাকি আজ পায়ে হেঁটে মন্দিরে যাবেন। ৫ । ভালোই হয়েছে । সামম্ভের রখের যে দশা, একেবারে দশরথ । পথের মধ্যে কথায় কথায় দশখানা হয়ে পড়ে । ৩ । হাঃ হাঃ হাঃ হাঃ । দশরথ । আমাদের লন্ধু এক-একটা কথা বলে ভালো । দশরথ । ৫ । সাধে বলি। ছেলের বিয়েতে ওই রথটা চেয়ে নিয়েছিলুম। ষত চড়েছি তার চেয়ে টেনেছি অনেক বেশি । ৪ । এক কাজ কর । বিভূতিকে কাধে করে নিয়ে যাই । বিভূতি। অারে কর কী। কর কী । ৫ । না, না, এই তো চাই। উত্তরকুটের কোলে তোমার জন্ম, কিন্তু তুমি আজ তার ঘাড়ে চেপেছ । তোমার মাথা সবাইকে ছাড়িয়ে গিয়েছে। [ কাধের উপর লাঠি সাজাইয় তাহার উপর বিভূতিকে তুলিয়া লইল । সকলে । জয় যন্ত্ররাজ বিভূতির জয় । গান নমো धब्ब, मcभ युञ, नcय यह, नcभी धक् । তুমি চক্রমুখরমশ্ৰিত, তুমি বজৰছিবদিত, তব বস্তুবিশ্ববক্ষোদংশ ধ্বংস-বিকট দন্ত ।