পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (চতুর্দশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/২২৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


❖ጳ ब्रदौटा-ब्रघ्ननांवलौ ধনঞ্জয় । বাধ বেঁধেছে, বললে ? গণেশ । ই, ঠাকুর । ধনঞ্জয় । সব কথাটা শুনলি নে বুঝি ? গণেশ। ও কি শোনবার কথা ? হেসে উড়িয়ে দিলুম। o ধনঞ্জয় । তোদের সব কানগুলো একা আমারই জিন্মায় রেখেছিল ? তোদের সবার শোনা আমাকেই শুনতে হবে ? শি ৩। ওর মধ্যে শোনবার আছে কী, ঠাকুর ? Ç ধনঞ্জয় । বলিস কী রে ? যে শক্তি দুরন্ত তাকে বেঁধে ফেলা কি কম কথা ? তা সে অন্তরেই হ’ক আর বাইরেই হ’ক । গণেশ। ঠাকুর, তাই বলে আমাদের পিপাসার জল আটকাবে ? ধনঞ্জয় । সে হল আর-এক কথা। ওটা ভৈরব সইবেন না । তোরা ব’ল, আমি সন্ধান নিয়ে আসি গে। জগৎটা বাণীময় রে, তার যেদিকটাতে শোনা বন্ধ করবি সেইদিক থেকেই মৃত্যুবাণ আসবে। [ ধনঞ্জয়ের প্রস্থান শিবতরাইয়ের একজন নাগরিকের প্রবেশ শি ৩ । এ কী বিষণ যে । খবর কী ? বিষণ। যুবরাজকে রাজা শিবতরাই থেকে ডেকে নিয়ে এসেছে, তাকে সেখানে আর রাখবে না । সকলে । সে হবে না, কিছুতেই হবে না । বিষণ। কী করবি ? সকলে । ফিরিয়ে নিয়ে যাব । বিষণ। কী করে ? সকলে । জোর করে। বিষণ। রাজার সঙ্গে পারবি ? সকলে । রাজাকে মানি নে । রণজিৎ ও মন্ত্রীর প্রবেশ রণজিৎ । কাকে মানিস নে ? সকলে । প্রণাম । গণেশ । তোমার কাছে দরবার করতে এসেছি । রণজিৎ । কিসের দরবার ?