পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (চতুর্দশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/২৫১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


Ssఆ রবীন্দ্র-রচনাবলী মন্ত্রী। মহারাজ, আজ জনসাধারণের মন একদিকে আত্মগাষায় অদ্যদিকে ক্রোধে উত্তেজিত। আজ অধৈর্বের দ্বারা অধৈর্ধকে উল্কাম করে তুলবেন না। রণজিং । ওখানে ও কে দাড়িয়ে ? ধনঞ্জয় বৈরাগী ? ধনঞ্জয়। বৈরাগীটাকেও মহারাজের মনে আছে দেখছি । রণজিং । যুবরাজ কোথায় তা তুমি নিশ্চিত জান। ধনঞ্জয়। না, মহারাজ, যা আমি নিশ্চিত জানি তা চেপে রাখতে পারি নে, তাই বিপদে পড়ি । রণজিৎ । তবে এখানে কী করছ? - ধনঞ্জয়। যুবরাজের প্রকাশের জন্যে অপেক্ষা করছি। নেপথ্যে। স্বমন, বাবা স্বমন । অন্ধকার হয়ে এল, সব অন্ধকার হয়ে এল। রাজা । ও কে ও ? মন্ত্রী । সেই অম্বা পাগলী । অস্বার প্রবেশ অম্বা। কই, সে তো ফিরল না । রণজিং। কেন খুজিছ তাকে ? সময় হয়েছিল, ভৈরব তাকে ডেকে নিয়েছেন। অম্বা। ভৈরব কি কেবল ডেকেই নেন ? ভৈরব কি কখনো ফিরিয়ে দেন না ? চুপিচুপি ? গভীর রাত্রে ?—স্বমন, স্বমন। [ প্রস্থান চরের প্রবেশ চর। শিবতরাই থেকে হাজার হাজার লোক চলে আসছে। বিস্তৃতি। সে কী কথা ? আমরা হঠাৎ গিয়ে তাদের নিরস্থ করব এই তো ঠিক ছিল । নিশ্চয় তোমাদের কোনাে বিশ্বাসঘাতক তাদের খবর দিয়েছে। কঙ্কর, তোমরা কয়জন ছাড়া ভিতরের কথা কেউ তো জানে না। তাহলে কী করে— কঙ্কর । কী বিভূতি ! আমাদেরও সন্দেহ কর না কি ? বিভূতি। সন্দেহ করার সীম৷ কোথাও নেই। কঙ্কর । তাহলে আমরাও তোমাকে সন্দেহ করি । বিভূতি। সে অধিকার তোমাদের আছে। যাই হ’ক সময় হলে এর একটা বোঝা-পড়া করতে হবে । . রণজিৎ । ( চরের প্রতি) তারা কী অভিপ্রায়ে আসছে তুমি জান ?