পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (চতুর্দশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/২৬১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


২৪৬ o ब्रयौटज-ब्रछनांदलौ হয় ; তাহারা রাজহাসের মতো জলে ভাসিতেছে, কিন্তু আনন্দে পাখা দুটি আকাশে ছড়াইয়া দিয়াছে। ኣ ভট্টাচাৰ মহাশয় ঠিক নিয়মিত সময়ে কোশাকুলি লইয়া স্নান করিতে আসিয়াছেন। সে বড়ো বেশি দিনের কথা নহে। তোমাদের অনেক দিন বলিয়া মনে হইতে পারে। কিন্তু আমার মনে হইতেছে এই সেদিনের কথা। আমার দিনগুলি কিনা গঙ্গার স্রোতের উপর খেলাইতে খেলাইতে ভাসিয়া যায়, বহুকাল ধরিয়া স্থিরভাবে তাহাই দেখিতেছি—এইজন্য সময় বড়ো দীর্ঘ বলিয়া মনে হয় না। আমার দিনের আলো রাত্রের ছায় প্রতিদিন গঙ্গার উপরে পড়ে আবার প্রতিদিন গঙ্গার উপর হইতে মুছিয়া যায়, কোথাও তাহাদের ছবি রাখিয়া যায় না। সেইজন্ত, যদিও আমাকে বৃদ্ধের মতো দেখিতে হইয়াছে, আমার হৃদয় চিরকাল নবীন। বহুবৎসরের স্মৃতির শৈবালভারে আচ্ছন্ন হইয়া আমার স্বৰ্যকিরণ মারা পড়ে নাই । দৈবাৎ একটা ছিন্ন শৈবাল ভাসিয়া আসিয়া গায়ে লাগিয়া থাকে, আবার স্রোতে ভাসিয়া যায়। তাই বলিয়া ষে কিছু নাই এমন বলিতে পারি না। যেখানে গঙ্গার স্নোত পৌছায় না, লেখানে আমার ছিদ্রে ছিন্দ্রে যে লতাগুল্মশৈবাল জন্মিয়াছে, তাহারাই অামার পুরাতনের সাক্ষী, তাহারাই পুরাতন কালকে স্নেহপাশে বাধিয়া চিরদিন শুামল মধুর চিরদিন মৃতন করিয়া রাখিয়াছে। গঙ্গা প্রতিদিন আমার কাছ হইতে এক-এক ধাপ সরিয়া যাইতেছেন, আমিও এক-এক ধাপ করিয়া পুরাতন হইতেছি। চক্রবর্তীদের বাড়ির ওই ষে বৃদ্ধ স্বান করিয়া নামাবলী গায়ে কঁাপিতে কঁাপিতে মালা জপিতে জপিতে বাড়ি ফিরিয়া যাইতেছেন উহার মাতামহী তখন এতটুকু ছিল। আমার মনে আছে তাহার এক খেলা ছিল, সে প্রত্যহ একটা স্বতকুমারীর পাতা গঙ্গার জলে ভাষাইয়া দিত ; আমার দক্ষিণ বাহুর কাছে একটা পাকের মতো ছিল, সেইখানে পাতাটা ক্রমাগত ঘুরিয়া ঘুরিয়া বেড়াইত, সে কলসী রাখিয়া দাড়াইয়া তাহাই দেখিত ৰখন দেখিলাম কিছুদিন বাদে সেই মেয়েটিই আবার ভাগল্প হইয়া উঠিয় তাহার নিজের একটি মেয়ে সঙ্গে লইয়া জল লইতে আসিল, লে মেয়েও আবার বড়ো হইল, রালিকার জল ছুড়িয়া দুরপ্তপনা করিলে তিনিও জাবার ডাহাদিগকে শাসন করিতেন ও ভদ্রোচিত ব্যবহার শিক্ষা দিতেন, তখন আমার সেই ঘৃতকুমারীর নৌকা ভাসানে মনে পড়িত ও বড়ো কৌতুক বোৰ হইত। । ". যে-কথাটা বলিৰ মনে করি সে অার অালে না । একটা কথা ৰলিতে বলিতে স্রোতে আর-একটা কথা ভাসিয়া আসে কথা আসে, কথা যায়, ধরিয়া রাখিতে পারি