পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (চতুর্দশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৩০২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শাস্তিনিকেতন ২৮৭ অতএব মানুষের একটা এমন পাওয়া আছে যার সম্বন্ধে চিরকালের কথাটা প্রয়োগ কর। যেতে পারে । 蛤 蟲 ভারতবর্ষ এই পাওয়ার দিকেই খুব করে মন দিয়েছিলেন । সেইজন্তেই ভারতবর্ষের হৃদয় মৈত্রেয়ীর মুখ দিয়ে বলেছেন—বেনাহং নামৃতা শুমি কিমহং তেন কুবাম্ ? সেইজন্তে মৃত্যুর দিক থেকে অমৃতের দিকে ভারতবর্ষ আপনার আকাঙ্ক প্রেরণ করেছিলেন । সেদিকে যারা মন দিয়েছে বাইরে থেকে দেখে তাদের বড়ো বলে তো বোধ হয় না। তাদের উপকরণ কোথায় ? ঐশ্বৰ্ধ কোথায় ? শক্তির ক্ষেত্রে ধারা সফল হয় তারা আপনাকে বড়ো করে সফল হয়—জার অধ্যাত্মক্ষেত্রে যারা সফল হয় তারা আপনাকে ত্যাগ করে সফল হয় । এইজন্ত দীন ষে সে সেখানে ধন্য । যে অহংকার করবার কিছুই রাখে নি সেই ধন্য—কেননা, ঈশ্বর স্বয়ং যেখানে নত হয়ে আমার কাছে এসেছেন, সেখানে ষে নত হতে পারবে সেই তাকে পূর্ণভাবে গ্রহণ করতে পারবে। এইজন্তেই প্রতিদিন প্রার্থনা করি, “নমস্তেহস্ত”— তোমাকে যেন নমস্কার করতে পারি, যেন নত হতে পারি, নিজের অভিমান কোথাও কিছু যেন না থাকে । জগতে তুমি রাজা অসীম প্রতাপ, হৃদয়ে তুমি হৃদয়নাথ হৃদয়হরণ রূপ । নীলাম্বর জ্যোতি-খচিত চরণপ্রাস্তে প্রসারিত, ফিরে সভয়ে নিয়মপথে অনস্তলোক । নিতৃত হৃদয়মাঝে কিবা প্রসন্ন মুখচ্ছবি, প্রেমপরিপূর্ণ মধুরভাতি । ভকতত্ত্বদয়ে তব করুণরস সতত বহে, দীনজনে সতত কর অভয়দান । ২৫ পৌষ সমগ্র এই প্রাতঃকালে যিনি আমাদের জাগালেন তিনি আমাদের সবদিক দিয়েই জাগালেন । এই ষে আলোটি ফুটে পড়েছে এ জামাদের কর্মের ক্ষেত্রেও জালো দিচ্ছে, জ্ঞানের ক্ষেত্রেও আলো দিচ্ছে—সৌন্দর্ধক্ষেত্রকেও আলোকিত করছে । এই